Breaking News
Home >> Breaking News >> বাঁকুড়ার পাত্রসায়রে আবারো তৃণমূল কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে

বাঁকুড়ার পাত্রসায়রে আবারো তৃণমূল কর্মীদের মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়াঃ লোকসভা ভোটের পর থেকে পাত্রসায়রে বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষযেন কিছুতেই থামতে চাইছে না। প্রতিদিনই সংবাদ শিরোনামে উঠে আসছে পাত্রসায়ের। একটাই সূত্র বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষ। প্রশাসনের পক্ষ থেকে অশান্তি এড়াতে পাত্রসায়রের বিভিন্ন জায়গায় সিসিটিভি কেমেরা বসানো হয়েছে, এমনকি একটি পুলিশ ক্যাম্প ও বসানো হয়েছে। বেলুট রসুলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে তবুও কিছুতেই বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষ থামছে না।

ফের একবার নীলকান্ত দাস বৈরাগ্য নামে এক তৃণমূল সমর্থনকারী কে মারধরের অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পাত্রসায়ের থানার বেলুট রসুলপুর পঞ্চায়েতের গড়েরডাঙ্গা এলাকায়। তৃণমূল সূত্রে খবর, নীলকান্ত দাস বৈরাগ্য পাত্রসায়রের নেত্রখণ্ড মামা বাড়ি থেকে বাড়ি ফিরছিল। সেই সময় গড়েরডাঙ্গা পার্টি অফিসের সামনে ওই তৃণমূল কর্মীকে আটকানো হয় এবং তাকে আটদশজন বিজেপি কর্মী মিলে ব্যাপক মারধর করে। এই ঘটনায় তিনি গুরুতর আহত হলে তাকে প্রথমে পাত্রসায়ের ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয় এবং পরে সেখানে থেকে তাকে পাঠানো হয় বিষ্ণুপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। এই মুহূর্তে সেখানেই তার চিকিৎসা চলছে।

আহত নীলকান্ত দাস বৈরাগ্য বলেন, আমি তৃণমূলের মিটিং এ গিয়েছিলাম বলে আজ ওরা আমাকে মারধর করেছে।

বেলুট রসুলপুর পঞ্চায়েত প্রধান তাপস বাড়ি বলেন, মুক্ত সমরার নেতৃত্বে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

তবে বিজিপির পক্ষ থেকে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করা হয়েছে। পাত্রসায়ের মণ্ডল ২ বিজেপির সভাপতি তমাল কান্তি গুই বলেন, এটা মিথ্যা অভিযোগ। নীলকান্ত দাস বৈরাগ্য সব সময় ড্রিঙ্ক করে থাকেন। ও নিজেই জানে না কখন কোথায় রাস্তাঘাটে পড়ে থাকে। তিনি বলেন তৃণমূল বিজেপি কর্মীদের নানা রকম ভাবে মিথ্যা কেসে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

এছাড়াও চেক করুন

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং না করার পরামর্শ দেন পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়া: কমবয়সী যুবকদের মদ্যপ অবস্থায় মোটর বাইক চালানোর প্রবনতা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.