Breaking News
Home >> Breaking News >> গড়বেতায় মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার যুবক

গড়বেতায় মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার যুবক

স্টিং নিউজ সার্ভিস, পশ্চিম মেদিনীপুরঃ উন্নাও কাণ্ডে যখন উত্তাল গোটা দেশ ঠিক সেই সময়ই পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতায় ঘটলো আরো একটি নারকীয় ঘটনা। গড়বেতার সানমুড়া গ্রামে এক মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে লালচাঁদ দোলই ওরফে লালু দোলইকে।

এঘটনায় চঞ্চল্য ছড়িয়েছে গড়বেতা জুড়ে। গত দুদিন ধরে মানুষ সংবাদ মাধ্যমে বা স্যোশাল মিডিয়ায় দেখেছে একদিকে হায়দরাবাদে পশু চিকিৎসককে ধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় এনকাউন্টার করে মারা হয়েছে ৪ পাষন্ডকে। আর একদিকে ৪৪ ঘন্টা লড়াই চালানোর পর শনিবার মারা যান উত্তরপ্রদেশের উন্নাও এর ধর্ষিতা মহিলা। আদালতে যাওয়ার পথে যাঁকে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল।

এদিন বিকেল থেকেই দেশের রাজধানীর পাশাপাশি সারা দেশ প্রতিবাদে উত্তাল। এর মাঝেই গড়বেতার সানমুড়া গ্রামে আর এক পাষন্ডের শিকার হলো মানসিক ভারসাম্যহীন এক কিশোরী। অগ্রহায়ন মাসের শেষে কৃষি প্রধান গড়বেতায় চলছে ধান কাটার কাজ। সকলের জমি থাকায় মজুর মেলেনা। তাই পরিবারের ছোট বড় সকলেই চলে যান মাঠে ধান কাটার কাজে লেগে পড়েন। বাড়িতে থাকেন বৃদ্ধ, বৃদ্ধা, আর যারা শারীরিকভাবে অক্ষম।

তাই শনিবার মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরীকে বাড়িতে একা রেখেই সকলে ধান কাটতে চলে গিয়েছিলেন দোলই দম্পতি। এই সুযোগে তাঁদের বাড়িতে ঢুকে পড়ে লালু দোলই। সেই গ্রামেই তার বাড়ি। কয়েকদিন ধরেই সে সুযোগ খুঁজছিল। বাড়িতে ঢুকেই দরজা বন্ধ করে ঝাঁপিয়ে পড়ে তার উপর। মুখে কাপড় গুঁজে ধর্ষণ করা হয়। এরপর সে পালিয়ে যায়। দুপরে তার বাবা মা ঘরে ফিরে দেখেন অঝোরে কেঁদেই চলেছে তাঁদের মেয়ে। কারন জানতে চাইলে সে আকারে ইঙ্গিতে ঘটনা জানায়। এতে কি করবেন ভেবে পাননি। তাঁরাও কাঁদতে থাকেন। প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

এসময় নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়ে ছুটে পালতে থাকে লালু। সে কেন ছুটে পালাচ্ছে তা জানতে কয়েকজন তাকে ধরে ফেলেন। কারন সে কিছু বলতে পারেনি। তবে তার জামার কিছুটা অংশ ছেঁড়া দেখে তাঁদের সন্দেহ হয়। তাকে ধরে মারতে মারতে নিয়ে যাওয়া হয় নির্যাতিতার কাছে। তাকে দেখেই নির্যাতিতা কান্নায় ভেঙে পড়ে তার দিকে আঙ্গুল দেখায়। চলে মারধর। পুলিশ এসে তাকে গ্রেপ্তার করে। নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

এঘটনায় উত্তেজনায় ফুঁসছে সানমুড়া গ্রাম।
পুলিশ সুপার দীনেশ কুমার জানান, অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কিশোরীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এছাড়াও চেক করুন

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং না করার পরামর্শ দেন পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়া: কমবয়সী যুবকদের মদ্যপ অবস্থায় মোটর বাইক চালানোর প্রবনতা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.