Breaking News
Home >> Breaking News >> সুমিত ঘোষকে কৃষ্ণনগর টিএমসিপি সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ায় দলে অসন্তোষ

সুমিত ঘোষকে কৃষ্ণনগর টিএমসিপি সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ায় দলে অসন্তোষ

স্টিং নিউজ সার্ভিসঃ সুমিত ঘোষকে টিএমসিপি সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ায় দলে অসন্তোষ। কৃষ্ণনগর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির পদ থেকে সুমিত ঘোষকে আচমকা সরিয়ে দেওয়ায় দলের মধ্যে শুরু হয়েছে অসন্তোষ। যার জেরে সুমিতের অনুগামীরা বৃহস্পতিবার জেলা পরিষদে বিক্ষোভ থেকে শুরু করে, শুক্রবার সকালে দ্বিজেন্দ্রলাল কলেজের সামনে পথ অবরোধে সামিল হয়।

প্রাক্তন সভাপতি সুমিত ঘোষের দাবি, দল আমায় লিখিত ভাবে কোনও কিছু জানায়নি। তার কথায় আমি ২০০৯ সাল থেকে তৃণমূল দল করি। ২০১২ সালে কৃষ্ণনগর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি নির্বাচন করে দল। দীর্ঘ সাত বছর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির পদ সামলেছি। দলের ভাল মন্দের ভাগিদার থেকেছি। ছাত্র ছাত্রীদের উন্নতির জন্য সর্বোতভাবে চেষ্টা চালিয়ে গেছি।

অপরদিকে সুমিত ঘোষকে সরিয়ে যাকে নতুন সভাপতি করা হয়েছে, সেই সুজয় হালদার বলেন, গত পরশু দলের তরফে আমায় চিঠি দিয়ে জানায়, কৃষ্ণনগর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি করা হল। নতুন সভাপতি সুজয় হালদার জানান, সভাপতি হয়ে দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল।

তিনি বলেন, আগামীদিনে আমার প্রধান লক্ষ্য হবে, জেলার ছাত্র- ছাত্রীদের উন্নতি। তার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যেতে চাই। সুমিত ঘোষকে সরিয়ে তাকে নতুন সভাপতি করায় দলে শুরু হয়েছে অসন্তোষ।

এ বিষয়ে নতুন সভাপতি বলেন, এ বিষয়ে তার কিছু জানা নেই। আর যদি কিছু হয়েও থাকে সেটা দল দেখবে। এ বিষয়ে যা বলার দলের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বলবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এক নেতা জানান, সুমিত ঘোষ প্রাক্তন জেলা সভাপতি গৌরী শংকর দত্তের অনুগামী হওয়ায় কোপ পড়ল তার উপর।

তারা এও জানান, সুজয় হালদার কৃষ্ণনগর পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান অসীম সাহার অনুগামী। আবার অসীম সাহা বর্তমান কৃষ্ণনগর জেলা সভাপতি মহুয়া মৈত্রের বিশেষ ঘনিষ্ঠ। সে কারণে সুমিত ঘোষকে সরিয়ে সুজয় হালদারকে নতুন সভাপতি করার পেছনে এই সমীকরণের তত্ত্ব খাড়া করছেন অনেকে।

তবে এই তত্ত্ব খারিজ করে, কৃষ্ণনগর টিএমসিপির এক ছাত্র নেতা বলেন, সুজয় হালদারকে সভাপতি করার পিছনে অসীম সাহা নয়, রয়েছে মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাসের হাত। সুজয় মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাসের ঘনিষ্ঠ।

ফলে নতুন সভাপতি নির্বাচনকে ঘিরে শুরু হয়েছে দলের মধ্যে অসন্তোষ। এ সন্তোষ এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, বৃহস্পতিবার বিকেলে কৃষ্ণনগর পৌর এলাকার বুথ ভিত্তিক পর্যালোচনা করবার জন্য নদিয়া জেলা পরিষদ ভবনে এক ঘরোয়া বৈঠক করতে আসেন, রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। সেখানে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য আসার কিছু পূর্বে সুমিত ঘোষের অনুগামীরা বিক্ষোভ দেখায়।

বিক্ষোভকারীদের দাবি ছিল অন্যায়ভাবে সুমিত ঘোষকে সরিয়ে দেওয়া চলবেনা। এরপর শুক্রবার সকালে কৃষ্ণনগর দ্বিজেন্দ্রলাল কলেজের সামনে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় সুমিত ঘোষের অনুগামী ওই কলেজের বেশকিছু ছাত্র-ছাত্রী।

যদিও কিছুক্ষন অবরোধ চলার পর, পুলিশ এসে তাদের অবরোধ তুলে দেয়। প্রসঙ্গত, কৃষ্ণনগর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির পদ থেকে সুমিত ঘোষকে আগাম কিছু না জানিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন দ্বিজেন্দ্রলাল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের একাংশ।

ওই ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষে অভিযোগ করা হয়েছে, সুমিত ঘোষকে আগাম কিছু না জানিয়ে কৃষ্ণনগর শহর তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে ।

যদিও নদিয়া জেলা ছাত্র পরিষদের সভাপতি সৌরিক মুখোপাধ্যায়কে দু’বার ফোন করা হলেও তিনি মিটিং-এর কারণ দেখিয়ে ফোন কেটে দেন। তাই সুমিত ঘোষকে সভাপতির পদ থেকে সরানো নিয়ে তার কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

এছাড়াও চেক করুন

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং না করার পরামর্শ দেন পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়া: কমবয়সী যুবকদের মদ্যপ অবস্থায় মোটর বাইক চালানোর প্রবনতা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.