Breaking News
Home >> Breaking News >> বাগডোগরায় জাতীয় সড়কের পাশে অবৈধ বাড়ি ও দোকান দখলমুক্ত করতে অভিযান জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের

বাগডোগরায় জাতীয় সড়কের পাশে অবৈধ বাড়ি ও দোকান দখলমুক্ত করতে অভিযান জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের

বিশ্বজিৎ সরকার, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, দার্জিলিংঃ জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের জন্য উচ্ছেদ অভিযান চালাল জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার শিলিগুড়ি মহকুমার নকশালবাড়ি ব্লকের আপার বাগডোগরার ভুজিয়াপানি এলাকার ৩১ নং জাতীয় সড়কের ধারের প্রায় ২০০ মিটার অংশে এই অভিযান চলে। প্রায় ৬০-৭০টি ঘরবাড়ি, দোকান গুড়িয়ে দেয় কর্তৃপক্ষ। পরিস্থিতি সামাল দিতে জল কমান সহ শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেটের বিশাল পুলিশ বাহিনী এলাকায় মোতায়েন করা হয়। যদিও এদিন এলাকার বাসিন্দারা প্রতিবাদ না জানালেও। বাসিন্দারা পুনর্বাসনের দাবি জানিয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান প্রায় ২৫-৩০ বছর ধরে তারা শিলিগুড়ি থেকে কলকাতা গামী ৩১ নং জাতীয় সড়কের পাশে বসতি করে বসেছেন। কিন্তু প্রশাসন পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করে জোরজুলুম চালিয়ে সরিয়ে দিচ্ছেন আমাদের। আমরা দিন আনি দিন খাই। এখন মহিলা, বাচ্চাদের নিয়ে কোথায় যাব।

আপার বাগডোগরার ভুজিয়াপানির এই এলাকায় প্রায় ২০০টি পরিবারের বাস। ৬ মাস আগে এন এইচ কর্তৃপক্ষ এলাকার ৬০-৭০ ঘরবাড়িতে নোটিশ পাঠিয়েছে। পরাস্তা থেকে ৬০ মিটার ভেতর পর্যন্ত এলাকার চিহ্নিত ঘরবাড়ি, দোকান ভাঙ্গা হয়েছে।

এদিন প্রায় ৬০-৭০টি কংক্রিটের ঘরবাড়ি ভাঙ্গা হয়। আর্থ মুভার, জেসিপি লাগিয়ে জাতীয় সড়ক বিভাগের শতাধিক কর্মীরা বিশাল পুলিস বাহিনীর সহযোগীতায় এই উচ্ছেদ অভিযান চালায়। এলাকার গাছপালা থেকে শুরু করে অধিকাংশ একতলা বিশিষ্ট কংক্রিটের ঘেরা দেওয়া টিনের ছাদের ঘরবাড়ি গুড়িয়ে দেওয়া হয় এই অত্যাধুনিক মেশিনের মাধ্যমে। যা দেখতে এলাকায় কয়েকশো মানুষের ভীড় উপচে পড়ে। এতে এলাকায় ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। যা নিয়ন্ত্রণ করতে মেট্রোপলিটন পুলিসের ট্রাফিক বিভাগের আধিকারিকদের অনেকটা বেগ পেতে হয়।

শিলিগুড়ি থেকে কলকাতা গামী ৩১ নং জাতীয় সড়কটি দীর্ঘ দিন ধরেই সম্প্রসারণের কাজ চলছে। কিন্তু একাধিক জায়গায় পিডাব্লুডি জমিগুলি দখল করে রাখায় সমস্যায় পড়তে হচ্ছে কর্তৃপক্ষকে।একদিকে নেপাল, ভারত, বাংলাদেশকে সংযুক্ত করতে যে এশিয়ান হাইওয়ের কাজ শুরু হয়েছে বাগডোগরায় তা অনেকটা এগিয়ে গেছে।বাগডোগরার বিহারমোড় থেকে ভুজিয়াপানি পর্যন্ত প্রায় ৪ কিমি রাস্তায় একাধিক জায়গায় অবৈধভাবে সরকারি জমিতে বসতি গড়ে তোলায় কর্তৃপক্ষের সম্মুখে জটিলতা দেখা দিয়েছে। যদিও এলাকার বাসিন্দাদের দাবি দীর্ঘদিন ধরে এখানে বসবাস করে আসছেন। সেক্ষেত্রে সরকার পুর্নবাসনের ব্যবস্থা করে দিলে ভালো হয়।

আপার বাগডোগরা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সঞ্জয় মাহাতো বলেন প্রায় ১০০টির মত বাড়িঘর সেখানে আছে। রাস্তা সম্প্রসারণের জেরে তাদের সেখান থেকে উচ্ছেদ করা হয়েছে। তবে এখনও আমরা এলাকা পরিদর্শন করতে যায়নি। তিনি আরো বলেন গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষে তাদের পুনর্বাসনের জন্য জমি দিতে পারি না। আমরা রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারের কাছে আবেদন জানাব।

এছাড়াও চেক করুন

মদ্যপ অবস্থায় ড্রাইভিং না করার পরামর্শ দেন পুলিশ সুপার কোটেশ্বর রাও

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়া: কমবয়সী যুবকদের মদ্যপ অবস্থায় মোটর বাইক চালানোর প্রবনতা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.