Breaking News
Home >> Breaking News >> মোমবাতি হাতে তরুণী পশু চিকিৎসকের খুনিদের দ্রুত মৃত্যুদণ্ড চাইছে যুব-সমাজ

মোমবাতি হাতে তরুণী পশু চিকিৎসকের খুনিদের দ্রুত মৃত্যুদণ্ড চাইছে যুব-সমাজ

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ, হাওড়াঃ সপ্তাহ ঘুরতে চললো হায়দরাবাদের শাদনগর থানা এলাকার তরুণী পশু চিকিৎসকের উপর অকথ্য অত্যাচারের ঘটনা। আম-জনতা প্রতিবাদের রাস্তা থেকে পিছিয়ে আসেনি। কোথাও মোমবাতি জ্বালিয়ে, কোথাও আবার মুখে কালো কাপড় জড়িয়ে প্রতিবাদের কন্ঠ মিলিয়েছেন।

প্রথমে গণধর্ষণ তারপর শ্বাসরোধ করে খুন। তারপর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয় দেহ। হায়দরাবাদের তরুণী পশু চিকিৎসকের উপর নির্মম অত্যাচারে স্তম্ভিত হয়েছে দেশের আম-জনতা। মানুষ এতটা নির্মম হত্যাকাণ্ড চালাতে পারে ভেবেই আঁতকে উঠেছে। প্রতিবাদ বিক্ষোভ চলছে দেশজুড়ে। মোমবাতি নিয়ে পথে হাঁটা, সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভে ঝরিয়ে দেওয়া। বাসে-ট্রেনে উত্তপ্ত বাক্য-বিনিময়। নির্ভয়ার পর হায়দরাবাদের ঘটনা সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

বাগনান এলাকার কলেজ পড়ুয়া প্রিতমা, অনুসূয়া, পূজা, লাবণ্য প্রত্যেকের কথায়, ২০১২ সালে ঘটে যাওয়া নির্ভয়াকান্ড দেশের প্রতিবাদকে জাগ্রত করেছিল। প্রতিবাদ দেখে সবাই ভেবেছিল কমবে হয়তোবা ধর্ষণের মতো ঘৃণ্য ঘটনা। কিন্তু কোথায় কি আবারও হায়দরাবাদের ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল বদলায়নি এতটুকু। লোভ-লালসায় ভরা লকলকে জিভ মহিলার সম্ভ্রম ছিন্নভিন্ন করতে সাহসী হয়ে উঠছেই। এরজন্য দায়ী আইনের ফাঁকফোকর! জেলা আদালত, তারপর হাইকোর্ট, পরে সুপ্রিম কোর্ট। সেখান থেকে অপরাধী আবেদন করে রাষ্ট্রপতির কাছে। ততদিনে ৬-৭ বছর পার হয়ে গিয়েছে। কত নির্ভয়া ধর্ষিতা হয়ে গিয়েছে জানেনা কেউ। লোকলজ্জায় মুখ না খুলে চোখের জলে বালিশ ভেজায়। সংসদে জয়া বচ্চনের মন্তব্যকে পূর্ণ সমর্থন জানাই। আইন কঠোর না হলে বাধ্য হবে আইন হাতে তুলে নিতে।

মৃত্যুদণ্ড দেওয়াই সঠিক কাজ হবে বলে জানাচ্ছে বাউড়িয়া কাজিরচড়া এলাকার যুবক অবিনাশ, কৌস্তভ, রাজু, অনিমেষ। ওঁদের কথায়, যে ধরণের ঘৃণ্য কাজ চার অভিযুক্ত করেছে ফাঁসি হবে উপযুক্ত সাজা। অপরাধীদের পক্ষ নিয়ে কোন উকিল যেন না দাঁড়ায়। মা-বোনেদের সম্মান যারা জানাতে জানে না তাদের ভারতবর্ষ শুধু নয় পৃথিবীতে বেঁচে থাকার অধিকার নেই। আমরা সবাই মিলে খলিসানি কালী তলায় মোমবাতি মিছিল করেছি। আমরা বলতে চাই, নারী যদি বাঁচতে চাও ভীরুতা ছেড়ে দুর্গা হও। দিল্লিতে নির্ভয়া, হায়দারাবাদে তরুণী পশু চিকিৎসক, মধ্যপ্রদেশের মহুতে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে খুন একের পর এক ঘটনা ঘটেই চলেছে। আমাদের দেশের প্রশাসন নাবালককে গ্রেফতার করে লকআপে ঢোকায়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে নাবালক হিসাবে বিচার শুরু করে। এ সবের বদল প্রয়োজন। একজন মহিলার সম্ভ্রম ছিনিয়ে নিতে পারা ছোকরা আর যাই হোক নাবালক হতে পারে না।

বাংলার শিক্ষিকা অজন্তা অধিকারী মন্ডলের কথায়, রোজ রোজ নৃশংস ভাবে মেয়েদের উপর অত্যাচার হচ্ছে। এটা সমাজের পক্ষে খারাপ। স্কুল পড়ুয়া মেয়েদের মুখগুলো শিক্ষার জন্য যতটা সম্ভব নিতে চায়। কিন্তু দেশজুড়ে ধর্ষিতা মেয়েদের খবর প্রকাশিত হচ্ছে আমরা ছাত্রীদের ক্যারাটে জাতীয় খেলা শিখবার জন্য বলেছি। নিজেদের রক্ষার প্রাথমিক দায়িত্ব তো নিজেদের নিতে হবে। সমাজ কে সুস্থ করতে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গকে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে। সংসদে দাঁড়িয়ে কঠোর আইনের জন্য মুখ খুলতে হবে। শুধুমাত্র মোমবাতি জ্বালিয়ে হবে না প্রতিবাদের কন্ঠ হিমালয়ের চূড়ায় পৌঁছাতে হবে।

এছাড়াও চেক করুন

পশ্চিম মেদিনীপুরে NRC, CAA, NPR ও কেন্দ্রীয় সরকারের জনস্বার্থবিরোধী আইনের বিরুদ্ধে জেলা যুব তৃণমূলের মিছিল

পশ্চিম মেদিনীপুর:- জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের আহ্বানে কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধী NRC/ CAA /NPR ও কেন্দ্রীয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.