Breaking News
Home >> Breaking News >> পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে আত্মঘাতী নদিয়ার নাকাশিপাড়ার জওয়ান

পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে আত্মঘাতী নদিয়ার নাকাশিপাড়ার জওয়ান

স্টিং নিউজ সার্ভিস, নদিয়াঃ বচসার জেরে নিজের পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে আত্মঘাতী নদিয়ার বাসিন্দা ইন্দ তিব্বত বর্ডার পুলিশের এক জওয়ান। এছাড়াও এই ঘটনায় আরও দুই জোয়ান গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে বলে সূত্রের খবির। ঘটনাটি ঘটেছে ছত্রিশগড়ের নারায়ণপুর জেলার বস্তারে। জানা যায়, দীর্ঘদিন ছুটি না মেলায়, মানসিক অবসাদে ভুগছিল নদিয়ার বাসিন্দা মাসুদুল রেহমান নামে ওই জওয়ান। এদিন কিছু বিষয় নিয়ে অন্যান্য সহকর্মীদের সঙ্গে বিবাদ বাধে।

বিবাদ চরমে পৌঁছালে, নিজের বন্দুক থেকে পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে হত্যা করার পর, নিজের বন্দুকের গুলিতে আত্মঘাতী হয় নদিয়ার নাকাশীপাড়া থানার বিলকুমারীর বাসিন্দা, ৪৫ নম্বর ব্যাটালিয়নের জওয়ান মাসুদুল রেহমান। বুধবার দুপুরে সে খবর বিলকুমারী গ্রামে পৌঁছাতেই শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা গ্রামে। স্থানীয় সূত্রে জানতে পারা যায়, নদিয়ার নাকাশীপাড়া থানার বিলকুমারী গ্রামের বাসিন্দা মাসুদুল রেহমান (৩৩) ২০০৮ সালে আই টি বি পুলিশে যোগ দেয়। বর্তমানে সে ছত্রিশগড়ের নারায়ণপুর জেলার বস্তারে কর্মরত ছিল। পরিবার ও গ্রামবাসীর অভিযোগ,দীর্ঘ এক বছর যাবৎ কোনও ছুটি না মেলায় মানসিক স্থিরতা হারিয়েছিল মাসুদুল।

অভিযোগ,বুধবার এই নিয়ে তার কিছু সহকর্মীর সাথে বচসা শুরু হয়। বচসা থেকে মাসুদুল তার নিজের রাইফেল থেকে পাঁচ সহকর্মীকে গুলি করে। ঘটনায় আরও দুই জওয়ান গুরুতর জখম হন। পাশাপাশি নিজেও বন্দুকের গুলিতে আত্মঘাতী হয়। পরিবার সূত্রে খবর, আজ থেকে দশদিন আগে ফোনে তার মা হানিফা বেগমের সঙ্গে কথা হয়েছিল মাসুদুল রেহমানের। সে সময় বিয়ের ব্যাপারে আলোচনার জন্য তাকে বাড়ী আসার কথা জানিয়ে ছিল মা। কিন্তু আবেদন জানালেও ছুটি মঞ্জুর না হওয়ার কথা জানিয়েছিল মাসুদুল। বুধবার বিকেলে বিলকুমারীর বাড়িতে তার মৃত্যু সংবাদ পৌঁছালে, গভীর শোকের ছায়া নেমে আসে। কেন মাসুদুল পাঁচ সহকর্মীকে হত্যা করল সে বিষয়ে কিছুই জানাতে পারেনি তার পরিবার ও গ্রামবাসীরা।

এছাড়াও চেক করুন

আগামী পুরসভা ভোটে আসন সংরক্ষণ নিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি দিলীপ যাদব

স্টিং নিউজ সার্ভিস, হুগলি: আগামী পুরসভা ভোটে দেখা যাচ্ছে যে সংরক্ষণের আওতায় পড়ে গিয়ে অনেক …

Leave a Reply

Your email address will not be published.