Breaking News
Home >> Breaking News >> নদিয়ার বাদকুল্লা থেকে সুদূর সুইজারল্যান্ডে পাড়ি দেবী উমার

নদিয়ার বাদকুল্লা থেকে সুদূর সুইজারল্যান্ডে পাড়ি দেবী উমার

স্টিং নিউজ সার্ভিস, বাদকুল্লা, নদিয়াঃ নদিয়ার অখ্যাত এক গ্রাম বাদকুল্লা থেকে সুদূর সুইজারল্যান্ডে পাড়ি দিল দেবী উমা। সেখানে আগামী বছরের একত্রিশ মার্চ পূজিতা হবেন বাসন্তী রূপে দেবীদুর্গা। বাসন্তী পুজোর প্রায় চার মাস আগেই সুদূর সুইজারল্যান্ডের জুরিক শহরে পাড়ি দিল তিন-তিনটি দুর্গাপ্রতিমা।

নদিয়ার তাহেরপুর থানা এলাকার বাদকুল্লা গ্রামের এক মৃৎশিল্পী, সুইজারল্যান্ডের একজন প্রবাসী বাঙালি বাড়ির পুজোর জন্য বানিয়েছেন তিন তিনটি দুর্গা প্রতিমা। বাসন্তী পুজোর চার মাস আগেই মাটির তৈরি তিন-তিনটি দুর্গা প্রতিমা কাঠের তৈরি বিশেষ বাক্সে বন্দি হয়ে রওনা দিল বাদকুল্লা থেকে সুইজারল্যান্ডের উদ্দেশ্যে ।

বাদকুল্লা স্টেশন সংলগ্ন বাজার এলাকার বাসিন্দা, মৃৎশিল্পী বিজয় পাল ও তার দশজন সহশিল্পীকে নিয়ে তৈরি করেছেন এই তিনটি দুর্গা প্রতিমা। উচ্চতায় প্রায় ৪ ফুট এবং দৈর্ঘ্যে ৫ ফুট বেষ্টনীযুক্ত বিশেষ কাঠের বাক্সে ভরে তিনটি দুর্গা প্রতিমা ট্রান্সপোর্টের মাধ্যমে প্রথমে পৌঁছাবে হরিয়ানার গুরগাঁওয়ে । এরপর সেখান থেকে বিমানে চড়ে পৌঁছাবে সুইজারল্যান্ডের জুরিক শহরে । তিনটি দুর্গা প্রতিমা কে তৈরি করা হয়েছে একচালির উপর ।

তিনটি প্রতিমাকেই জড়ির বিশেষ সাজে সাজানো হয়েছে। মাটির তৈরি দুর্গা প্রতিমারগুলির উচ্চতা দুই ফুট এবং লক্ষ্মী,সরস্বতী, কার্তিক এবং গণেশের উচ্চতা প্রায় দেড় ফুট। মৃৎ শিল্পী বিজয় পাল জানান, চলতি বছরের অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে কাজ শুরু করা হয়েছিল। তিনটি দুর্গাপ্রতিমা গড়তে প্রায় এক মাস লেগে যায়। বিজয় পাল বলেন, তিনটি প্রতিমার কাজ সম্পন্ন করতে আমার সঙ্গে আরও দশজন সহশিল্পী যোগ্য সহযোগিতা করেছে।

এর আগেও বিজয় পালের তৈরি দুর্গা প্রতিমা ও পিতলের গণেশ পাড়ি দিয়েছিল আমেরিকার আটলান্টা শহরে। এরপর নতুন করে সুইজারল্যান্ডে তার তৈরি দুর্গা প্রতিমা পাড়ি দেওয়ায়, স্বাভাবিকভাবেই খুশি শিল্পী স্বয়ং। ভীষণ খুশি ওই এলাকার বাসিন্দারাও। তাহেরপুর থানা এলাকার বাসিন্দা সৌম্যভদ্র সেনগুপ্ত নামে একজনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই পরিচয় রয়েছে মৃৎ শিল্পী বিজয় পালের।

মৃৎশিল্পে শিল্পী বিজয় পালের শৈল্পিক মুন্সিয়ানার পরিচয় দীর্ঘদিনের। সেটা সৌম্য বাবুও ভালোই জানেন। সৌম্যবাবু জানালেন, গৌর গুপ্ত নামে আমার এক আত্মীয় সুইজারল্যান্ডের জুরিক শহরে থাকেন । তিনি বাড়িতে এবার বাসন্তী পুজো করবেন বলে সিদ্ধান্ত নেন। তাই তার জন্য চাই দুর্গা প্রতিমা। বিজয় পালের শৈল্পিক মুন্সিয়ানার কথা জানতে পেরে, সৌম্যভদ্রবাবু কে দুর্গা প্রতিমা গড়ার অর্ডার দেন সুইজারল্যান্ডের জুরিক শহরের প্রবাসী বাঙালি গৌর গুপ্ত ।

মৃৎশিল্পী বিজয়পাল জানিয়েছেন, এর আগেও আমার তৈরি প্রতিমা আমেরিকার আটলান্টা শহরে পাড়ি দিয়েছিল। সৌম্যভদ্রবাবু আমার তৈরি প্রতিমা দেখেছেন। তার মাধ্যমেই তার এক আত্মীয়র বাড়িতে বাসন্তী পুজো করবার জন্য আমার কাছে দুর্গা প্রতিমা তৈরীর অর্ডার দিয়েছেন।

মাস খানেক সময় নিয়ে আমি আমার দশ জন সহশিল্পীকে নিয়ে তিনটি দুর্গা প্রতিমা তৈরি করেছি। প্রতিমাগুলি সুইজারল্যান্ডে পাড়ি দিচ্ছে, তাই শিল্পী হিসাবে খুবই ভালো লাগছে আমার। জানা যায়, তিনটি দুর্গা প্রতিমার তৈরির পারিশ্রমিক বাবদ দেড় লক্ষ টাকা পেয়েছেন শিল্পী বিজয় পাল।

এছাড়াও চেক করুন

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে আত্মহত্যা করলেন এক স্কুল শিক্ষক

বিশ্বজিৎ মন্ডল, স্টিং নিউজ, মালদাঃ পারিবারিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.