Breaking News
Home >> Breaking News >> পেঁয়াজ, ব্রয়লার মুরগি এবং ডিম ত্রিফলার গেরোয় মধ্যবিত্তের হেঁসেল আগুন

পেঁয়াজ, ব্রয়লার মুরগি এবং ডিম ত্রিফলার গেরোয় মধ্যবিত্তের হেঁসেল আগুন

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ, হাওড়াঃ মাস খানেক আগে থেকেই মধ্যবিত্তের চোখে ঝাঁজ এনে দিয়েছে পেঁয়াজ। এবার দোষর হয়েছে ব্রয়লার মুরগি। সঙ্গে বাড়ছে ডিমের দাম। ত্রিফলার গেরোয় কার্যত মধ্যবিত্তের সাধ্যের বাইরে চলে যাচ্ছে পুষ্টিকর স্বাদ।

পেঁয়াজের দাম বাড়তে-বাড়তে প্রতিকেজি একশ টাকা ছাড়িয়েছে। আগামীদিন লক্ষ্যমাত্রা যে কোথায় গিয়ে পৌঁছাবে বুঝতে পারছে না খোলা বাজারে বিক্রি ব্যবসায়ী থেকে সাধারণ মানুষ। এবার যুক্ত হয়েছে বয়লার মুরগির দাম। বাজারে ছাড়ানো মুরগির মাংসের দাম ১৬০-১৭০ এমনকি ১৮০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। কোনও দিন তা ২০০ টাকায় পৌঁছবে বলে আশঙ্কা করছে সাধারণ মানুষ। তাঁদের কথায়, পেঁয়াজের দাম ৫০ থেকে বাড়তে বাড়তে এখন একশ ছুঁয়েছে। কোথাও আবার ১১০টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। সাধ করে মাংস কিনতে গিয়েও পকেট দেখতে হচ্ছে। খোলা বাজারে ছাড়ানো মুরগির মাংস বিক্রি হচ্ছে ১৭০ টাকা কিলোগ্রাম দরে। যা চল্লিশ টাকা কেজিতে বেশি দরে। সরকার টাস্কফোর্স গড়ছে কিন্তু কোথায় কি হচ্ছে। পেঁয়াজ তো চড়া ছিল তার সঙ্গে মুরগির মাংসর দামটাও নাগাল ছাড়ছে।

বাজার চলতি সাধারণ মানুষের কথায়, জেলার খোলা বাজার জুড়ে দাম না-কমুক এক কিলোগ্রাম মাংসে আড়াশ গ্রাম পেঁয়াজ তো দিতেই হবে। স্বাদ তো আর আদা-রুসন এনে দেয় না। পরিমাণ মাফিক পেঁয়াজ কুচিও দিতে হয়। সরকার তো সেসবের দিকে নজর দিচ্ছে না! মধ্যবিত্তদের ইনকাম তো বাড়ছে না। তাহলে কিনবে কিভাবে। উদয়নারায়নপুর এলাকার কৃষক হরেকৃষ্ণ রায়, জীবন কাঁড়ার, অসিম কোলে প্রত্যেকের কথায়, পেঁয়াজের দর বাড়ায় সাধারণ মানুষ হাই হুতাশ করছেন। কিন্তু যখন পেঁয়াজের দাম থাকেনা। খরচের টাকাও উঠতো না সে সবের দিকে কেউ দেখত না। কৃষকের দেনায় ডুবতে হয়েছে। এখন দাম ওঠায় কিছুটা হলেও চাষিদের পকেটে টাকা যাবে। কিন্তু কতটা প্রশ্ন উঠছে বিভিন্ন মহলে। বেশিরভাগ সময় দেখা যায় লাভের অনেকটা পকেটে ভরে দালাল বা ফড়েদের। কদমতলা, রামরাজাতলা, আন্দুল বিভিন্ন জায়গায় পেঁয়াজ ও মুরগির মাংস উভয়েই ‘প্রভাবশালী’। বিক্রেতাদের কথায়, দাম বাড়া থাকায় মানুষ কিনছেন কম।

ব্যবসায়ীদের কথায়, মেদিনীপুর, আরামবাগ দিক থেকে আসা গোটা মুরগির দাম বাড়তে থাকায় বাধ্য হচ্ছে খোলা বাজারে দামে বিক্রি করতে। চাহিদা-জোগানের সরল হিসাব মিলিয়ে বহু সময় দাম ওঠানামা করে। এক্ষেত্রে তেমন কিছু ঘটছে বলে এখনও মনে হচ্ছে না। শীতে মুরগির রোগ আসলে দামের হেরফের হবে। ব্রয়লার মুরগি কে দেওয়া প্রতিষেধকের দাম বাড়ছে। কতটা প্রতিষেধক দেওয়া হচ্ছে নজর দিচ্ছে না সরকার। এভাবে চললে আগামী দিনে ব্রয়লার মুরগির রোগ আসতে পারে এবং ডিমের দাম বাড়বে বলে আশঙ্কা।

এছাড়াও চেক করুন

সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে আত্মহত্যা করলেন এক স্কুল শিক্ষক

বিশ্বজিৎ মন্ডল, স্টিং নিউজ, মালদাঃ পারিবারিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.