Breaking News
Home >> Breaking News >> গাদিয়াড়া ফেরি ঘাটে অনিয়মিত লঞ্চ পরিষেবা, অফিস ভাঙচুর চালালো ক্ষিপ্ত জনতা

গাদিয়াড়া ফেরি ঘাটে অনিয়মিত লঞ্চ পরিষেবা, অফিস ভাঙচুর চালালো ক্ষিপ্ত জনতা

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ, হাওড়াঃ লঞ্চ দেরিতে চলার অভিযোগ ছিল বহুদিনের। সোমবার তার বহিঃপ্রকাশ ঘটলো। ভাঙচুর চালানো হয় জেটি সংলগ্ন অফিসে। চেয়ার টেবিল এমনকি বাদ যায়নি কম্পিউটার। ছিঁড়ে দেওয়া হয় টিকিট ও দরকারী কাগজপত্র। সকালের দিকে এমন ঘটনায় হতচকিত হয়ে পড়েন গাদিয়াড়া ফেরি ঘাটের অফিসে কর্মরত কর্মচারীরা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার গাদিয়াড়া ফেরি ঘাটে নূরপুর যাবার জন্য লঞ্চের অপেক্ষা করছিল যাত্রীরা। সময়ের বহু সময় পরেও লঞ্চ না মেলায় ক্ষোভ ছড়াতে থাকে। প্রায় দেড়ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকার পরেও লঞ্চ না আসায় শুরু হয়ে যায় বিক্ষোভ। অফিস গেটের তালা ভেঙে ভিতরে পৌঁছে যায় যাত্রীরা। শুরু হয় তান্ডব। হাতের কাছে যা পায় ভেঙে দেওয়া হয়। লণ্ডভণ্ড করে দেওয়া হয় অফিস। খবর যায় শ্যামপুর থানায়। ছুটে আসে পুলিশ। ভাঙচুর তখন বিক্ষোভে পরিণত। যাত্রীদের নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

লঞ্চের কর্মী দের কথায়, গাদিয়াড়া-নূরপুর রুটে ক’দিন ১টি লঞ্চ ও ১টি ভেসেল চলছিল। লঞ্চটি খারাপ হয়ে যাওয়ার কারণে শুধুমাত্র ভেসেলটি চালুছিল। ফলে সময় লাগছিল এপার-ওপার করতে। যাত্রীদের একাংশ ক্রমাগত উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলতে থাকে। তাতেই উত্তপ্ত হয়ে পড়েন সকালের দিকে কাজে যাওয়া মানুষ জন। গাদিয়াড়া ফেরি ঘাটের অফিসের বাইরে ভেঙে ফেলে দেওয়া হয় টেবিল, চেয়ার। অফিসের ভিতর মেঝেতে ফেলে দেওয়া হয় কিবোর্ড। ভেঙে দেওয়া হয় কম্পিউটার। যাত্রীদের বোঝা দরকার লঞ্চ খারাপ হয়ে পড়লে খারাপ লঞ্চ না সারিয়ে কিভাবে জলপথে চালানো হবে। এ দিন লঞ্চটি ঠিক হয়ে গেলে কাল থেকে চলবে। সেকথা না শুনে ভাঙচুর করা হয় অফিস।

যাত্রীদের অভিযোগ, গাদিয়াড়া পর্যটন স্থল হয়েও ছিটেফোঁটা পরিষেবা মেলে না। বাস চলে না ঠিকমতো। রাস্তাঘাটের পিচ উঠে গেছে। মানুষ দ্রুত পৌঁছাতে ফেরি সার্ভিস ব্যবহার করে। সেটার হালও তথৈবচ। সময়ে চলে না লঞ্চ। টাইম টেবিল দেওয়া থাকলেও তার বহু সময় পর মেলে লঞ্চ। আগে চারটি লঞ্চ চললেও এখন দু’টি চলে। অন্য দুটিকে সাগরে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে! বুলবুল-বুলবুল করে শুক্রবার থেকে টানা বন্ধ করে দেওয়া হয় পরিষেবা। বাধ্য হয়ে যাত্রীদের কলকাতা ঘুরে বাগনানে আসতে হয়। বাগনান থেকে গাড়ি মেলেনি। অটোয় চারশো টাকা দিয়ে গাদিয়াড়া-শ্যামপুর ফিরতে হয়েছিল।

পুলিশ সূত্রে খবর, শ্যামপুর থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ইতিমধ্যে সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। ভাঙচুরের ঘটনায় কয়েক জনকে আটক করা হয়েছে।

এছাড়াও চেক করুন

ফাঁসিদেওয়ার মুণি চা বাগানে গণ বিবাহ অনুষ্ঠানে হাজির পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব

বিশ্বজিৎ সরকার, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, দার্জিলিংঃ শুক্রবার শিলিগুড়ি মহকুমার ফাঁসিদেওয়া ব্লকের মুণি চা বাগানে শ্রীহরি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.