Breaking News
Home >> Breaking News >> নদীয়ার চাপড়ায় বিজেপি ও সিপিএম ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান

নদীয়ার চাপড়ায় বিজেপি ও সিপিএম ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান

সমীর রুদ্র, স্টিং নিউজ করেসপন্ডেন্ট, চাপড়া, নদীয়া: চাপড়ায় বিজেপি ও সিপিএম ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন প্রায় তিন শতাধিক কর্মী ও সমর্থক । আজ বিকেলে চাপড়ার পিপড়াগাছী অঞ্চলের মধুপুর এফ পি এ হাইস্কুলের মাঠে তৃণমূল কংগ্রেসের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন চাপড়ার বিধায়ক রুকবানুর রহমান ও ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি জেবের সেখ সহ চাপড়া ব্লক ও পিঁপড়াগাছী অঞ্চলের বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দ। উক্ত সভায় বাম নেতা তিলক চক্রবর্তী ও বিজেপির অমৃত রায় এর নেতৃত্বে প্রায় তিন শতাধিক সিপিএম ও বিজেপির কর্মী সমর্থক রুকবানুর রহমান ও জেবের সেখের হাত থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা তুলে নেন।

আজকের সভায় মহিলাদের উপস্থিতি ও স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। সভাস্থলে বিধায়ক রুকবানুর রহমান ও ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি জেবের সেখ সহ অন্যান্য ব্লক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত হলে মহিলারা উলুধ্বনি ও শঙ্খধ্বনি করে তাদের সাদর অভ্যর্থনা জানান।
সিপিএম ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানকারী তিলক চক্রবর্তী স্টিং নিউজ কে জানান ” দীর্ঘদিন ধরে বামপন্থী আন্দোলনের সাথে যুক্ত থাকলেও মমতা ব্যানার্জি র নেতৃত্বে মা – মাটি – মানুষের সরকারের উন্নয়ন যজ্ঞে সামিল হতে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলাম”।

মধুপুর গ্রামের অপর এক নেতা অমৃত রায় বলেন “বিজেপির সাম্প্রদায়িক রাজনীতির প্রতিবাদে ও এলাকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অটুট রাখতে তার এই তৃণমূলে যোগদান ,এর ফলে এলাকাবাসীর জন্য কাজ করতে সুবিধা হবে “।

মধুপুর গ্রামের প্রায় তিন শতাধিক কর্মী ও সমর্থক তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের ফলে খুশী বিধায়ক রুকবানুর রহমান।তিনি যোগদানকারী কর্মী সমর্থকদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন এর ফলে এলাকার উন্নয়ন আরও গতি পাবে এবং আগামী পঞ্চায়েত নির্বাচনে ওই এলাকায় তৃণমূল আরও ভালো ফল করবে।তিনি এলাকাবাসী কে যে কোনও সাম্প্রদায়িক উস্কানি ও প্ররোচনা থেকে সতর্ক থাকতে অনুরোধ করেন।

loading...

এছাড়াও চেক করুন

প্রবল জলোচ্ছাস মন্দারমনি, তাজপুর, শংকরপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা,মন্দারমনি: শনিবার রাত থেকে সমুদ্র ছিলো উত্তাল। রবিবার সকাল থেকে জলধা,তাজপুর,শংকরপুর,মন্দারমনিতে মেরিন ড্রাইভ উপচে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.