Breaking News
Home >> Breaking News >> ভুয়া সিআইডি কর্মীকে পাকড়াও করল পুলিশ

ভুয়া সিআইডি কর্মীকে পাকড়াও করল পুলিশ

স্টিং নিউজ সার্ভিস, নবদ্বীপ, নদিয়াঃ মঙ্গলবার ভুয়া এক সিআইডি কর্মীকে গ্রেপ্তার করল নবদ্বীপ থানার পুলিশ।পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার হওয়া ওই ব্যক্তির নাম গোপাল চন্দ্র ঘোষ। বাড়ি নবদ্বীপ পৌরসভার মঙ্গলচন্ডী তলা এলাকায়। ধৃতকে বুধবার দুপুরে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১৯, ৫০৬ ও ৩৪ ধারায় মামলা রুজু করে নবদ্বীপ আদালতে পাঠায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানতে পারা যায়, ধৃত ব্যক্তি নিজেকে কখনও আরপিএফের কর্তা আবার কখনও সিআইডি কর্মী।এই পরিচয় দিয়ে শহরের বিভিন্ন সাইবার কাফেতে পৌঁছে যাচ্ছিলেন। তার সঙ্গে কয়েকজন সঙ্গী। ঠিক এভাবেই শহরের বিভিন্ন সাইবার ক্যাফেতে সটান পৌঁছে গিয়েই অস্পষ্ট একটা আইডি কার্ড দেখাত। যাতে সিআইডি বা আরপিএফ কথাটুকুই শুধু পড়া যায়। সেই অস্পষ্ট কার্ড দেখিয়ে সটান বসে পড়ছিলেন কম্পিউটারে।এরপর কম্পিউটার ঘাঁটতে ঘাঁটতে মালিককে নানাবিধ প্রশ্নে জর্জরিত করা।

শেষমেষ জানাচ্ছিলেন, তাঁর বিরুদ্ধে বড়সড় অপরাধের অভিযোগের প্রমাণ মিলেছে। তাঁকে গ্রেফতার করা হবে। ব্যাপারটা ভালো করে বোঝার আগেই একজন তাঁকে ডেকে একটু পাশে গিয়ে নিচু স্বরে জানাচ্ছিলেন, কিছু টাকাপয়সা দিলে ব্যাপারটা এখানেই মিটিয়ে নেওয়া যেতে পারে। কত টাকা? শহরের এক ক্যাফের মালিক সুকান্ত বসাকের কাছে ওঁরা চেয়েছিলেন তিরিশ হাজার টাকা। আবার রানীরচড়ার ক্যাফে মালিক সমীর মজুমদারের কাছে পঞ্চাশ হাজার। ওঁরা দুজনেই ক্যাফেতে অনলাইনের মাদ্ধমে রেলের টিকিট করেন।

শনিবার রাতে নবদ্বীপ রেজিস্ট্রি অফিসের মোড়ে সুকান্ত বাবুর ক্যাফেতে প্রথমে গৌতম রায় নামে একজন আসেন। তৎকালে রবিবারের কামরূপ এক্সপ্রেসে নিউজলপাইগুড়ি যাওয়ার টিকিট করতে।সুকান্তবাবু বলেন, উনি বলেছিলেন ওনার বাড়ি প্রতাপনগর। ছটপুজোতে বাড়ি ফেরা জরুরি তাই তৎকালে টিকিট চাই। আমি জানাই তৎকালে টিকিট এভাবে হয় না, সরাসরি কাউন্টার থেকে কাটতে হয়। তখন উনি সাধারন টিকিট করে দিতে বলেন। দুশো টাকা অগ্রিম দেন। কিন্তু কোন আই কার্ড দিতে পারেন নি। তখন আমার সন্দেহ হওয়ায় আমি টাকা ফেরত দিয়ে দিই। উনি চলে যান। এরপর রবিবার বেলা এগারোটা নাগাদ চার ব্যক্তি আসে।

সুকান্ত বাবুর অভিযোগ, তারা এসেই আমাকে প্রায় আটকে রেখে কম্পিউটার নিয়ে বসে পরে তাদের মধ্যে একজন। পরিচয় দেয় তারা সকলেই আরপিএফের লোক। কিন্তু ওদের কথা বলার ধরন বা কম্পিউটার নাড়াচাড়া দেখেই আমার সন্দেহ হয়। তার আরও অভিযোগ, তারা আমাকে বলেন তিরিশ হাজার টাকা দিলেই যাবতীয় অভিযোগ মিটে যাবে। এরপর তারা সেখান থেকে চলে যায়।সোমবার অবশ্য তার কাছে আসেনি কেউ। ওই একই দল এরপর যায় রাণীর চড়া রোডের সমীর মুজমদারের সাইবার ক্যাফেতে।

সমীর বাবু বলেন, এসেই আমাকে সরিয়ে কম্পিউটারে বসে পড়েন তাদের মধ্যে গোপাল ঘোষ নামে একজন। কিছু পরেই সে বলে প্রচুর অভিযোগ আছে আপনার বিরুদ্ধে। আপনাকে গ্রেপ্তার করা হবে।সমীর বাবু জানান, এরপর তাদের মধ্যে একজন তাকে পাশে ডেকে নিয়ে গিয়ে বলে, পঞ্চাশ হাজার টাকা দিলে সব মিটিয়ে দেব। সমীর বাবু রাজি হওয়ার ভান করে সময় চান। সোমবার দুপুরে টাকা নিতে আসার কথা ছিল। ইতিমধ্যে সোমবার দুপুরে পুলিশের কাছে বিষয়টি জানিয়ে রাখেন সমীরবাবু। তাঁকে বলা হয় দোকানে টাকা নেওয়ার জন্য কেউ এলেই যেন, তাঁকে বসিয়ে রেখে খবর দেওয়া হয়। সতর্ক থাকেন এলাকার ছেলেরাও। যথারীতি মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটে নাগাদ সমীরবাবুর রাণীরচড়া রোডের দোকানে চলে আসেন ওই দলের গোপাল ঘোষ নামে এক ব্যক্তি। তিনিই আগের দিন টাকা পয়সার রফা করছিলেন। ওই ব্যক্তিকে ক্যাফেতে ঢুকতে দেখে ঘিরে ফেলেন এলাকার ছেলেরা। পরে পুলিশে খবর পাঠান হয়। পুলিশ এলে তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য এর আগেও এক ব্যক্তি ইসকন মায়াপুরে নিজেকে নদিয়ার ভাবি জেলা শাসক পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে পালিয়ে যায়। পরে অভিযোগের ভিত্তিতে সেই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে নবদ্বীপ থানার পুলিশ। এই ঘটনায় ধৃত গোপাল চন্দ্র ঘোষ ছাড়াও আর কারা কারা যুক্ত আছে, তা তদন্ত করে দেখছে নবদ্বীপ থানার পুলিশ।

এছাড়াও চেক করুন

ফের সেতু উদ্বোধন নিয়ে দেখা দিল তৃনমুল বিজেপি সংঘাত

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়াঃ ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর নবনির্মিত একটি রেলওয়ে ওভার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.