Breaking News
Home >> Breaking News >> দীর্ঘ লড়াইয়ের পর মৃত্যু হল জমি আন্দোলনের তথা বিজেপির যুব মোর্চার নেতা দীপঙ্করের

দীর্ঘ লড়াইয়ের পর মৃত্যু হল জমি আন্দোলনের তথা বিজেপির যুব মোর্চার নেতা দীপঙ্করের

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, কোচবিহার: মৃত্যুর সাথে দীর্ঘদিন লড়াই করে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন কোচবিহার খাগড়াবাড়িতে জমি আন্দোলনের অন্যতম নেতা তথা বিজেপির যুব মোর্চার সক্রিয় নেতা দীপঙ্কর দেব। তিনি কোচবিহারের একটি বেসরকারি নাসিং হোমে চিকিৎসাধীন থাকার তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ভর্তি করা হয় শিলিগুড়ি একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এরপরই চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে গতকাল গভীর রাতে মৃত্যু হয় দীপঙ্কর দেবের।
জানা গেছে,দুর্গাপূজার অষ্টমীর রাতে কোচবিহার ২ ব্লকের পুন্ডিবাড়ি এলাকায় পথ দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হযন তিনি। প্রথমে তাকে কোচবিহারের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হলেও অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে রাতারাতি স্থানান্তরিত করা হয় শিলিগুড়িতে। সেখানেই দীর্ঘদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করার পর গভীর রাতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, কোচবিহার খাগড়াবাড়ি এলাকায় যে জমি আন্দোলন হচ্ছিল তাঁর পুরোধা ছিলেন মৃত এই দীপঙ্কর। তার নেতৃত্বেই গড়ে উঠেছিল এই আন্দোলন। এখানেই শেষ নয়, এই আন্দোলন করতে গিয়ে দীপঙ্করবাবু একাধিকবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেছিলেন, যাদের বিরুদ্ধে আমি এই লড়াই করছি, তারা কেউ আমায় ছেড়ে দেবে না।

কিন্তু তিনি এই অসহায় গরীব মানুষদের শেষ ভিটেমাটি থেকে বঞ্চিত হতে দেবেন না বলেও সাফ জানিয়ে দেন। এই কারণেই তাঁকে কেউ বা কারা বারবার প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দেয় বলে জানান তিনি।

তবুও সেই হুমকিকে উপেক্ষা করে পিছপা হননি তিনি। শুধু তাই নয়, জমি আন্দোলনকারীদের সাথে থাকার আশ্বাসও দিয়েছিলেন যুব মোর্চার এই নেতা। এর কিছুদিন পরেই অষ্টমীর রাতে পুন্ডিবাড়ি এলাকায় তাঁর এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। দীপঙ্কর চলে গেলেও এটা কিন্তু সাধারণ মানুষকে ভাবাচ্ছে।

এই মৃত্যু পরিকল্পিত খুন নাকি সত্যিই কোনও দুর্ঘটনা। সেদিকেই তাকিয়ে সাধারণ মানুষ তথা বিভিন্ন রাজনৈতিক দল গুলি।

এছাড়াও চেক করুন

কেক কেটে শিশু দিবস পালন করল মালদা রেল চাইল্ড লাইনের সদস্যরা

বিশ্বজিৎ মন্ডল, স্টিং নিউজ, মালদাঃ পথশিশুদের নিয়ে কেক কেটে শিশু দিবস পালন করল মালদা রেল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.