Breaking News
Home >> Breaking News >> নদিয়ার কৃষ্ণনগর-২ ব্লকে গ্রামীণ সম্পদ কর্মীদের প্রকাশ্য সমাবেশের প্রস্তুতি সভা, ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা বেতনের দাবি

নদিয়ার কৃষ্ণনগর-২ ব্লকে গ্রামীণ সম্পদ কর্মীদের প্রকাশ্য সমাবেশের প্রস্তুতি সভা, ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা বেতনের দাবি

স্টিং নিউজ সার্ভিস, ধুবুলিয়া, নদিয়া: ১৫০ টাকা মজুরি আর নয়। দাবি, ভিআরপিদের বেতন দিতে হবে মাসে ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা। এই রকম দাবি নিয়ে আজ কৃষ্ণনগর-২ ব্লকের ভিআরপি সংগঠনের একটি প্রস্তুতি মিটিং হয়ে গেল ধুবুলিয়া-১ নং গ্রাম পঞ্চায়েতর মিটিং হলে। সূত্রের খবর, রাজ্যের প্রায় ৩৩ হাজার ভিআরপি ২০১৬ তে, সম্পূর্ণ সরকারী নিয়ম নির্দেশে পরীক্ষা দিয়ে, সোসাল অডিটের কাজে নিযুক্ত হয় Village Resource Person– ভিআরপি পদে।
আজকের এই আলোচনা সভায় নদীয়া জেলা ভিআরপি সংগঠনের সহ -সম্পাদক সঞ্জয় হালদার ও সদস্য বিকাশ চন্দ্র ঘোষ উপস্থিত ছিল।

সারা বছর কাজ ও মাসিক মাহিনার দাবীতে বিভিন্ন দপ্তরে দপ্তরে স্মারকলিপি, ডেপুটেশন, আবেদন,নিবেদন করতে থাকে ভিআরপিরা দীর্ঘ ৩ বছর ধরে।তারই ভিত্তিতে জনদরদী মানবিক মুখ্যমন্ত্রী সোসাল অডিটের কাজের সাথে V.B.D.C.P “পতঙ্গ বাহিত রোগ নির্মূল সার্ভের কাজ” যোগ করেন।

কিন্তু সোসাল আডিটের দৈনিক পারশ্রমিকের হারে ৩৫২ টাকা বেতন না দিয়ে,মাত্র ১৫০ টাকা পারিশ্রমিকে সপ্তাহে ৫ দিন,মাসে ২০ দিনে মাসে মাত্র ৩০০০ টাকা দেওয়া হয়।এই টাকা পেতে ৩ থেকে ৪মাস অপেক্ষা করতে হয়।এই টাকার বেশীর ভাগ অংশ ভিআরপিদের বাড়ি বাড়ি VBDCP এর সার্ভের কাজে জন্য রাস্তা (ভাড়া)খরচ হয়ে যায়— এমনই বলেন জেলার সহ-সম্পাদক সঞ্জয় হালদার ।

এই চরম বর্ধিত দ্রব্য মূল্যের বাজারে “গ্রামীণ সম্পদ কর্মী”দের সংসার চালান কোন ভাবেই সম্ভব হচ্ছে না।চরম দুঃখ দূর্দশা ও সংকটের মধ্যে ভি আর পি দের দিন কাটাতে হচ্ছে, রাজ্যের ৩৩ হাজার শিক্ষিত যুবক/যুবতী’দের।

সারা বাংলা প্রামীন সম্পদ কর্মী সংগঠনের নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগর ২ ব্লক ভিআরপি সংগঠনের সম্পাদক হিরা হালসানা বলেন, সরকার বাহাদুরকে মাসে ন্যূনতম ১৫ হাজার টাকা বেতন দিতে হবে। এর আগেও আমরা ভিআরপিরা, আমাদের সমস্যার কথা তূলে ধরতে ব্লকে ব্লকে, জেলায় জেলায় ডিএমকে ডেপুটেশন দিয়েছি। ৬ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ তে কোলকাতা রাসমনিতে প্রকাশ্য সমাবেশ করেছি। ১৫ ই ফ্রেব্রুয়ারি ২০১৯ নবান্ন অভিযান করেছি। ভিআরপিদের মাসিক বেতন চালু করার দাবীতে পথে নেমেছি। আমদের দুঃখ, দূর্দশা ও সমস্যার কথা বার বার জানিয়েছি!সরকার কোন সমস্যার সমাধান করেনি।
আমরা আমাদের ৩৩ হাজার ভিআরপির সমস্যার কথা তুলে ধরতে, আবার কোলকাতা মহানগরীতে ৭ ই নভেম্বর জমায়েত হয়ে, নিজেদের ৭ দফা দাবী পূরণের লক্ষ্যে প্রকাশ্যে সমাবেশ করছি।

তিনি আরও জানান-সমাবেশের মধ্যে দিয়ে ভিআরপি প্রতিনিধি দল, মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী, ও মাননীয় পঞ্চায়েত মন্ত্রীকে ডেপুটেশন সহ স্মারকলিপি প্রদান করবেন, এমনটা জানিয়েছেন ব্লক সম্পাদক হিরা হালসানা ।

ব্লক কমিটির আহ্বায়ক প্রসেনজিৎ মোদক বলেন- এবার ৭ দফা দাবী নিয়ে ৭ ই নভেম্বর রাস্তায় নামছি।মাত্র ১৫০ টাকা পারিশ্রমে কোন সুযোগ সুবিধা ছাড়া VBDCP এর মতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ আমাদের করতে হচ্ছে ।

ব্লক কমিটির সম্পাদক হিরা হালসানা বলেন — ৬২ বৎসরের কর্মনিশ্চয়তা দিয়ে,স্বচিত্র পরিচয় পত্র সহ,স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় আনতে হবে।পঞ্চায়েত ও ব্লক স্তরে আলাদা কক্ষের ব্যবস্থা করতে হবে। TA, DA, PF সরকারী সমস্থ সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করে,নিয়োগ পত্র প্রদান করে,সরকারী কর্মীর মর্যাদা দিয়ে, ন্যুন্যতম ১৫ হাজার টাকা মাসিক বেতন চালু করতে হবে। নইলে আগামীতে VRP-রা, বড়ো ধরনের আন্দোলনে সামিল হবে।

এছাড়াও চেক করুন

ফের সেতু উদ্বোধন নিয়ে দেখা দিল তৃনমুল বিজেপি সংঘাত

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়াঃ ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর নবনির্মিত একটি রেলওয়ে ওভার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.