Breaking News
Home >> Breaking News >> বাঁকুড়া বিষ্ণুপুরে অনুষ্ঠিত হলো রাম রাবণের যুদ্ধ, যুদ্ধ শেষে রাবন বধ

বাঁকুড়া বিষ্ণুপুরে অনুষ্ঠিত হলো রাম রাবণের যুদ্ধ, যুদ্ধ শেষে রাবন বধ

নরেশ ভকত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, বাঁকুড়াঃ প্রায় চারশো বছরের প্রাচীন মল্লরাজাদের আমলেই এই রাবণকাটা নৃত্য “রাবন-কাটা” আজও বিষ্ণুপুরের ঐতিহ্য কে বয়ে নিয়ে চলছে। বিজয়া দশমীর দিন থেকে শ্রী শ্রী রঘুনাথ জিউয়ের অভিষেক হয় এবং মন্দিরের সামনে রাবণের ভাই কুম্ভকর্ণকে বধ করে শুরু হয় বাংলার দশেরা।দ্বাদশীর সকাল থেকে নাচ গানের পর। “যুদ্ধংদেহী” রাবনের মূর্তি সাজানো হয়।

রাম সীতাও লক্ষনের মূর্তির সামনে রঘুনাথ জিউ কাছ থেকে রাবণ অবধি ২১ বার যাতায়াতের পর সুগ্রীব ও জাম্বুবানের নাচের মধ্যে রাবণের গলায় বীর হনুমান তরোয়াল দিয়ে রাবনের মুন্ডু কাটতেই মাটির তৈরী রাবণের মুন্ডু এবং সারা শরীর মাটিতে হুড়োহুড়ি করে পড়ে যায়।মল্লবাসীর বিশ্বাস এই রাবণের মুন্ডু এবং শরীররের মাটি বাড়ীতে নিয়ে রাখলে বাড়ীতে অশুভ শক্তি প্রবেশ করতে পারে না।

প্রায় চারশো বছরের প্রাচীন মল্লরাজাদের আমলেই এই রাবণকাটার দল তৈরি হয়েছিল। আজ আর মল্লরাজাদের রাজপাট নেই, তবুও রাবণ কাটা নৃত্য শিল্পীরা এই ঐতিহ্য কে টিকিয়ে রেখেছে। বিজয়াদশমী থেকে দ্বাদশী এই তিন দিন রাবণ কাটা নৃত্য শিল্পীরা সারা বিষ্ণুপুর বাড়িতে বাড়িতে ঘুরে বাচ্চা ছেলেদের কোলে নিয়ে নাকাড়া,ঝাঁঝ,ও কাঁসির তালে তাল মিলিয়ে নৃত্য প্রদর্শন করেন। এই তিন দিনের নৃত্যে লোকজনের অনুবাদ,বোকশিস হল নামমাত্র রোজগার।পূজোর তিন দিন রাবণ কাটা নৃত্য ছাড়া বছরের বাকী দিনগুলো তারা অন্য কাজে যুক্ত থাকে।

এছাড়াও চেক করুন

কেক কেটে শিশু দিবস পালন করল মালদা রেল চাইল্ড লাইনের সদস্যরা

বিশ্বজিৎ মন্ডল, স্টিং নিউজ, মালদাঃ পথশিশুদের নিয়ে কেক কেটে শিশু দিবস পালন করল মালদা রেল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.