Breaking News
Home >> Breaking News >> এনআরসি ইস্যুকে সামনে রেখে, নিশীথ প্রামানিকের খাস তালুকে দাপিয়ে মিছিল তৃনমূলের

এনআরসি ইস্যুকে সামনে রেখে, নিশীথ প্রামানিকের খাস তালুকে দাপিয়ে মিছিল তৃনমূলের

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ, কোচবিহারঃ বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামানিকের গড়ে দাপিয়ে মিছিল করল তৃনমূল কংগ্রেস। লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার কেন্দ্রে তৃনমূলের পরাজয়ের পর স্বতঃস্ফূর্ত এধরনের মিছিল ভেটাগুড়িতে দেখে গেল আজ। সম্প্রতি বিজেপি-তৃনমূলে সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়েছে ভেটাগুড়ি।

এদিনের এই মিছিল তৃনমূলের কাছে ছিল চ্যালেঞ্জের। শেষ পর্যন্ত এনআরসি ইস্যুকে সামনে রেখে ভেটাগুড়ি বাজার-বন্দর এলাকা জুড়ে বেশ ভাল সংখ্যক কর্মী সমর্থক নিয়ে মিছিল সংগঠিত হয়। এদিন ওই মিছিলের নেতৃত্ব দেন দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ, কোচবিহার জেলা কার্যকারী সভাপতি পার্থপ্রতীম রায়, যুব নেতা আনন্দ বর্মণ, সাকিল আক্তার (ডেবিট) সহ আরও অনেকে।

লোকসভা ফল প্রকাশের পর এই জেলায় রাজনৈতিক ভাবে কোন ঠাসা হয়েছে তৃনমূল। শেষ পর্যন্ত নেতৃত্বের রদবদল করে এবং ক্রমাগত আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে নিজেদের পায়ের তলার মাটি শক্তিশালী করতে নেমেছে তৃনমূল নেতৃত্ব। দিদিকে বলো কর্মসূচী মধ্যে দিয়ে জন সংযোগ বাড়িয়ে অনেকটাই মানুষের কাছাকাছি পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করে তৃনমূল। এর পর মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সারা রাজ্য জুড়ে এনআরসি ইস্যুকে সামনে রেখে তৃনমূলের আন্দোলন। এদিন ভেটাগুড়িতে নিজেদের শক্তি জাহির করতে এনআরসি ইস্যুতে ধিক্কার মিছিল করে তৃনমূল কর্মী সমর্থকরা।

এদিন এই ধিক্কার মিছিল প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃনমূল যুব কংগ্রেসের নেতা আনন্দ বর্মণ বলেন, আমরা মানুষের অধিকার চাই। লোকসভা নির্বাচনে কিছুটা ভ্রান্তির জন্য বিজেপি এই আসনে জিতেছে বটে। কিন্তু সাধারন মানুষ আমাদের সাথে আছে। বিজেপি শুধু সাম্প্রদায়িক দলেই নয়, তাঁদের উদ্দেশ্য এই বাংলায় সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করে অশান্তির ছড়ান। মানুষ ওদের উদ্দেশ্যে বুঝতে পেরে সরে এসেছে। ২০২১ এ ফের তৃনমূল এরাজ্যের ক্ষমতায় আসবে বলে দাবী তার।

এবিষয়ে মিছিল শেষে কোচবিহার তৃনমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি পার্থ প্রতীম রায় বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার এন আর সি করার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে এরাজ্যে। কিন্তু তৃনমূল এর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক আন্দোলন গড়ে তুলবে। অসমে ১৯ লক্ষ মানুষকে নাগারিকহীন করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গে এধরনের পরিকল্পনা গ্রহন করছে তারা।

এরই প্রতিবাদে আমরা আন্দোলনে নেমেছি। সর্বাত্মক ব্যর্থ কেন্দ্রের মোদী সরকার গোটা দেশে অচল অবস্থা সৃষ্টি করেছে। শুধু জাতপাতের ইস্যুই নয়, মন্দা অর্থনীতি, কালাকানুন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এই সরকারের আমলে হচ্ছে। এ রাজ্যেও তারা জাতিবিদ্বেষ ছড়াচ্ছে গ্রাম-গ্রামান্তের অস্থির রাজনৈতিক পরিবেশ সৃষ্টি করছে। এই কারনে আমরা বিজেপির বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এছাড়াও চেক করুন

ভারত জাকাত মাঝির ডাকা পথ অবরোধের জেরে স্তব্ধ ঝাড়গ্রাম

স্টিং নিউজ সার্ভিস, ঝাড়গ্রামঃ ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষ থেকে সাঁওতালি মাধ্যমে শিক্ষক শিক্ষণের ডিএলএড কোর্স চালু ও …

Leave a Reply

Your email address will not be published.