Breaking News
Home >> Breaking News >> তৃণমূলের মিছিলকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা কোচবিহারের খাগড়াবাড়িতে

তৃণমূলের মিছিলকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা কোচবিহারের খাগড়াবাড়িতে

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ, কোচবিহার: জমি বিবাদ নিয়ে উত্তেজনার রেশ কাটতে না কাটতেই ‘দিদি কে বল’ কর্মসূচীকে সামনে রেখে কোচবিহারের খাগড়াবাড়িতে মিছিল করল তৃণমূল কংগ্রেস। আজ খাগড়াবাড়ির মহিষবাথান এলাকা থেকে মিছিল শুরু করে তৃণমূল।

এদিন ওই মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন তৃণমূলের কোচবিহার ১ নম্বর ব্লক প্রাক্তন সভাপতি খোকন মিয়াঁ, কোচবিহার ২ নম্বর ব্লক প্রাক্তন সভাপতি পরিমল বর্মণ সহ খাগড়াবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। ওই মিছিলকে কেন্দ্রে খাগড়াবাড়ি এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তবে যাতে কোন অশান্তির সৃষ্টি না হয়, তার জন্য ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

খাগড়াবাড়িতে তৃণমূল কংগ্রেসের অঞ্চল সভাপতি সজল সরকারের দাদা সুবল বাবু খাগড়াবাড়ির মহিষবাথান এলাকায় বেশ কিছু জমি কেনে। ইতিমধ্যেই সেই জমির ঘেরাও দেওয়ার কাজ হয়েছে। কিন্তু ওই জমি মালিকদের দাবি, তাদের ভয় দেখিয়ে জোর করে ওই জমি নেওয়া হয়েছে। তাই জমি ফেরতের দাবিতে কমিটি গঠন করে আন্দোলনে নামে তারা। সম্প্রতি মিছিল করে এসে জমি মালিকরা জেসিবি দিয়ে জমিতে প্রবেশের রাস্তায় থাকা গেট ভেঙে দেয়।

এরপরেই এদিন দিদিকে বল কর্মসূচীকে সামনে রেখে আন্দোলনে নামে তৃণমূল। তাদের অভিযোগ, জমি রক্ষা কমিটির নামে বিজেপির লোকজন গ্রামের মানুষকে উসকে দিয়ে গণ্ডগোলের সৃষ্টি করছে।

কোচবিহার ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি পরিমল বর্মণ বলেন, “খাগড়াবাড়িতে বিজেপি সন্ত্রাসের সৃষ্টি করতে চাইছে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা হাতে চুড়ি পড়ে বসে নেই। প্রয়োজন পড়লে রাস্তায় নেমে মোকাবিলা করা হবে।”

বিজেপির কোচবিহার জেলার সভাপতি মালতি রাভা বলেন, “জমি আন্দোলনে তাদের নৈতিক সমর্থন রয়েছে। তবে ওই আন্দোলনের সাথে বিজেপির কোন সম্পর্ক নেই। তবে ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যদি কোন বিজেপি কর্মীকে আক্রমণ করা হয়, তাহলে আমরাও ছেরে কথা বলবো না।”

এছাড়াও চেক করুন

বাংলা থেকে বিহারে মদ পাচারের পথে দুই ডেলিভারি বয়কে গ্রফতার করলো হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ

স্টিং নিউজ সার্ভিস,মালদা: বাংলা থেকে বিহারে মদ পাচারের পথে দুই ডেলিভারি বয়কে গ্রফতার করলো হরিশ্চন্দ্রপুর …

Leave a Reply

Your email address will not be published.