Breaking News
Home >> Breaking News >> ফের তৃনমূলের দাপট সিতাইয়ে, বিজেপির সঙ্গ ছাড়ল ২ শতাধিক কর্মী

ফের তৃনমূলের দাপট সিতাইয়ে, বিজেপির সঙ্গ ছাড়ল ২ শতাধিক কর্মী

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ, কোচবিহারঃ জনসংযোগ কর্মসূচিকে হাতিয়ার করে হারানো জমি ফিরে পেতে মরিয়া তৃনমূল। দিদিকে বলো কর্মসূচি ইতিমধ্যেই ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে কোচবিহার জেলায়। সম্প্রতি সিতাই কেন্দ্রের বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়া তার বিধানসভা এলাকায় দিদিকে বলো কর্মসূচি সংগঠিত করে।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্র নাথ ঘোষ। এই কর্মসূচি সফল হওয়ার পরেই এলাকার কর্মীরা তাদের মনোবল ফিরে পায়। এরপরই শনিবার সকালে সিতাইয়ে কেন্দ্র বিরোধী আন্দোলনে জমায়েত হয় তৃনমূল কর্মীরা।

সেখান থেকেই তাদের দখল হয়ে যাওয়া দলীয় কার্যালয় পুনঃউদ্ধার করে এবং এদিনই বিজেপি থেকে ২ শতাধিক কর্মী তৃণমূলে যোগদান করে বলে দাবী করা হয়েছে। তাদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন ওই এলাকার বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়া, নুর আলম হোসেন।

লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর এই বিধানসভা কেন্দ্রে সন্ত্রাসের বাতাবরণ তৈরি হয়। রাজনৈতিক হিংসায় উত্তপ্ত হয় সিতাই। এমনকি সন্ত্রাসের কারনে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেরান ওই এলাকার নির্বাচিত তৃনমূল বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়া। লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার কেন্দ্রে বিজেপি জয়ী হলেও এই বিধানসভা এলাকা থেকে বড় রকমের ব্যবধানে তৃনমূল এগিয়ে ছিল। তবে ফল প্রকাশের পর বিজেপির ব্যাপক প্রভাব সেখানে লক্ষ করা যায়। ফের রবিবার তৃনমূল দাপটে এলাকা দখলের রাজনীতিতে অনেকটাই এগিয়ে রইল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

এবিষয়ে কোচবিহার জেলা বিজেপি নেতা হেমচন্দ্র বর্মণ বলেন, সিতাইয়ে ভয় দেখিয়ে কিছু মানুষকে তৃণমূলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, এটি একটি অঘটন মাত্র। সময়ের সাথে সাথে সব ঠিক হয়ে যাবে।

এ প্রসঙ্গে তৃনমূল নেতা তথা সিতাই কেন্দ্রের বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়া বলেন, ভুল বুঝে কিছু মানুষ বিজেপিতে গিয়েছিল, বিজেপির প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে তারা আবার দলেই ফিরে এসেছে। কিছু সময়ের জন্য বিজেপির মদতে দুস্কৃতিরা যে সন্ত্রাস চালিয়েছিল তারা এখন এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেরাচ্ছে।

এছাড়াও চেক করুন

ঝাড়গ্রামে হাতির হানায় মৃত এক মহিলা

স্টিং নিউজ সার্ভিস,ঝাড়গ্রাম: আবারও হাতির হানায় মৃত্যু এক মহিলার। ঘটনাটি গোপীবল্লভপুর ২নং ব্লকের আগড়বনী গ্রামের। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.