Breaking News
Home >> Breaking News >> হলদিয়া ব্লকের মাছ চাষের অভুতপূর্ব কর্মকান্ড দেখতে সূদূর কর্নাটক রাজ্যের দুই প্রধান মৎস্য বিজ্ঞানী এলেন রাজ্যে

হলদিয়া ব্লকের মাছ চাষের অভুতপূর্ব কর্মকান্ড দেখতে সূদূর কর্নাটক রাজ্যের দুই প্রধান মৎস্য বিজ্ঞানী এলেন রাজ্যে

স্টিং নিউজ সার্ভিসঃ হলদিয়া ব্লকের মাছ চাষের সাফল্য সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। ২০১৭ সালে রাজ্যবাসিকে এক নতুন মাছের পরিচয় ঘটায় হলদিয়া ব্লক মৎস্য দপ্তর। রাজ্যের মানচিত্রে আসে রুই, কাতলার মতো সুস্বাদু “আমুর” কার্প মাছ। সারা রাজ্যে ব্যাপক সাড়া পড়ে যায়। কর্নাটক এর মৎস্য গবেষনা কেন্দ্র থেকে আনা হয়েছিল আমুর মাছ।

আমুর কার্প এর চাষের সাফল্য সহ হলদিয়া ব্লকের মাছ চাষের কর্মকান্ড সরজমিন প্রত্যক্ষ করার জন্য সূদূর কর্নাটক এর সেই মতস্য গবেষনা কেন্দ্র থেকে কয়েকদিনের সফরে হলদিয়ায় এসেছেন দেশের দুই বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী।
কর্নাটকের হেসারঘাট্টায় অবস্থিত ফিসারী রিসার্চ ও ইনফরমেসান সেন্টার ( মৎস্য গবেষণা ও তথ্য কেন্দ্র ) এর প্রধান মৎস্য বিজ্ঞানী ডঃ কোন্ডাজ্জি নারাপ্পা প্রভুদেবা এবং সহযোগী মৎস্য বিজ্ঞানী ডঃ মনজাপ্পা এন ।

আগামী বুধবার ১৭ই জুলাই ২০১৯ এ হলদিয়ার রামচাঁদ হলে মাছ চাষ বিষয়ক এক সেমিনারে যোগদান করবেন। বৈচিত্রময় মাছ চাষে সফল হলদিয়া এখন সারা দেশের রোল মডেল। আমুর মাছের চাষ হলদিয়া থেকেই জনপ্রিয় লাভ করে।

১৬ই জুলাই ২০১৯ এর ভোরে দমদম বিমানবন্দর পৌছান। আগে থেকেই বিমান বন্দরে উপস্থিত ছিলেন হলদিয়ার মৎস্য আধিকারিক। সেখান থেকে হলদিয়া ব্লক মৎস্য সম্প্রসারন আধিকারিক সুমন কুমার সাহুর সাথে সোজা হলদিয়া এসে পৌছান। হলদিয়ার এক এক করে সমস্ত মৎস্যখামার গুলি পরিদর্শন করেন।

পেংবা মাছের ফিসারী, পাবদা মাছের ফিসারী, সরপুটি, গুলসা টেংরা, কৈ, মাগুর সহ বিভিন্ন মিষ্টি জলের মাছের খামার গুলি পরিদর্শন করেন। রাজ্যের সেরা মাছ চাষিদের খামার গুলি দেখে ওনারা অভিভূত হন। আমুর চাষি মৃন্ময় সামন্তের মৎস্য খামারে জাল ফেলে আমুর মাছ দেখেন। সদ্য জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত মাছ চাষি অরুপ মন্ত্রি পেংবা মাছের খামার দেখান। ঘুরে দেখেন মীন মিত্র প্রাপক রাজ্য সেরা মহিলা মাছ চাষি আরতি বর্মনের মাছের খামার।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ৫ই মে হলদিয়া ব্লক মৎস্য দপ্তরের তত্বাবধানে সূদুর কর্নাটক রাজ্য থেকে এসেছিল আমুর কার্প মাছ । একেবারে সফল চাষ হয় হলদিয়ায়। পাঁচ মাসে ওজন দাঁড়ায় দেড় কেজি। এই আমুর মাছ চাষের জন্য মুখ্যমন্ত্রির কাছ থেকে রাজ্য সেরা কৃতি মাছ চাষির পুরস্কারও পান আমুর মাছ চাষি মৃন্ময় সামন্ত। বর্তমানে আমুর কার্পের প্রজনন হচ্ছে এই বাংলাতেই আমুর কার্পের কৃত্রিম প্রজনন হচ্ছে।

সারা রাজ্যেই আমুর কার্পের চাষ শুরু হয়ে গেছে। বাঁকুড়ার রামসাগরের হ্যাচারী মালিক কার্তিক প্রামানিকের কথায় লক্ষ লক্ষ আমুর মাছের চারাপোনা বিক্রি করেছেন এই বছর। আরো চাহিদা রয়েছে। চাষ আমুর বা কালচার ভ্যারাইটি ও প্রজনন আমুর বা ব্রীড ভ্যারাইটি – এই দুই ধরনের আমুর মাছ উৎপন্ন করেছেন মৎস্য বৈজ্ঞানিকরা । ব্রীড ভ্যারাইটি আমুর থেকেই কালচার আমুর বা চাষের আমুর পাওয়া গেলেও চাষের আমুর কে আবার প্রজনন করিয়ে সঠিক চরিত্রের আমুর পাওয়া যাবেনা। এই বিষয়ে সচেতন করার বার্তা দেওয়া হয় হ্যাচারী মালিকদের।

এছাড়াও চেক করুন

শিলিগুড়ির গোয়ালটুলি মোড়ে অভিযান চালিয়ে প্রায় দশ কেজি সোনা সমেত তিনজনকে গ্রেপ্তার করলো কেন্দ্রীয় রাজস্ব গোয়েন্দা দপ্তরের আধিকারিকরা

স্টিং নিউজ সার্ভিস: গোপন সূত্রে খবরের ভিত্তিতে গতকাল শিলিগুড়ির গোয়ালটুলি মোড়ে অভিযান চালিয়ে প্রায় দশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.