Breaking News
Home >> Breaking News >> বাইকের কিস্তির টাকার জন্য মা’কে পিটিয়ে খুন করলো ছেলে

বাইকের কিস্তির টাকার জন্য মা’কে পিটিয়ে খুন করলো ছেলে

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ, হাওড়া : ছেলে কিনেছে বাইক, কিস্তি মেটাতে হবে বাবা-মা’কে। টানাটানির সংসারে কোনক্রমে খাওয়াপরা টুকু হয় ৷ তারপর বাইকের কস্তি’র টাকা মাসের শুরুতে ছেলের হাতে তুলে দিতে পারেনি বৃদ্ধ মা। যার জেরে ছেলের হাতে নৃশংস ভাবে মৃত্যু হল পঞ্চান্ন বছর বয়সি ‘মা’-এর। ঘটনাটি ঘটেছে গ্রামীণ হাওড়ার রাজাপুর থানার অন্তর্গত খলিসানি রথতলায়। মৃত মহিলার নাম মালতী মন্ডল(৫৫)। ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে রাকেশ মন্ডলকে গ্রেফতার করেছে রাজাপুর থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উলুবেড়িয়া খলিসানির বাড়িতে বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতো অভিযুক্ত ছেলে রাকেশ মণ্ডল। মাঝেমধ্যে নেশা করতো। অনেকবার বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হতে শোনা গেছে। চিৎকার চেচামেচির আওয়াজ প্রায় সময় আসে। কিন্তু বুধবার রাতে যা ঘটলো এককথায় মর্মান্তিক। রাতে ওদের বাড়ি কাছে পৌঁছে দেখা যায়, মাকে মাটিতে ফেলে বেধড়ক মারধর করছে রাকেশ। একসময় লাঠির ঘায়ে ‘মা’ লুটিয়ে পড়ে। বাধা দিতে গেলে লাঠি নিয়ে তেড়ে আসে। মাথায় চোট লেগেছে এলাকার একজনের। কোনক্রমে মালতী মন্ডলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। রাকেশের লাঠির আঘাতে এলাকার একজনের মাথার কিছুটা ফেটে যাওয়ায় তাকেও চিকিৎসা করানো হয়। মাথায় ছ’টা সেলাই হয়েছে।

মালতী দেবীর মেয়ে মুনমুন বলেন, ভোর সাড়ে চারটের সময় আমার কাছে ফোন আসে। বলা হয় মা’কে প্রচন্ড মারধোর করেছে ভাই রাকেশ। হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শ্বশুর বাড়ি থেকে হাসপাতালে পৌঁছে দেখি মা আর নেই। ভাই জুটমিলে কাজ করে। এর আগে বিয়ে করেছিল। বউ কে মারধরের জন্য ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। কয়েকমাস আগে নতুন বাইক কিনেছে। কিস্তির টাকার জন্য বাবা-মাকে চাপ দিত ৷ আগেও বেশ কয়েকবার বাবাকে মেরেছে। বলেছিলাম থানায় যেতে ৷ মা বলতো থানায় গেছি শুনলে কোথায় ঘরে ফিরে আবার মারতে থাকবে। মদের নেশা ছিল শুনেছি। তবে কোনদিন দেখেনি খেতে। বাইকের কিস্তির টাকার জন্য এমন ঘটনা ঘটালো।

হাওড়া জেলা (গ্রামীণ) পুলিশ সুপার সৌম্য রায় জানিয়েছেন, ৩০২ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ দিন আদালতে নিয়ে যাওয়া হবে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

ঘটনার জেরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এলাকাবাসীদের অভিযোগ, প্রায় সময় মদ খেয়ে বাড়ি আসতো। জুট্মিলে কাজ করলেও কাজে না গিয়ে আড্ডাবাজি করতো। মাস চারেক হয়েছে নতুন বাইক কিনেছে। ওই বাইকের কিস্তি মেটানোড় জন্য বাবা-মা’কে চাপ দিত। টাকা না দিলে তেড়ে যেত। বিয়ে করেছিল। বউকেও প্রায় সময় মারধোর করতো। মেয়ের বাড়ির লোকজন কয়েকবার বুঝিয়ে যায়। তাতেও না শোনায় ছাড়াছাড়ি করে মেয়েকে নিয়ে চলে যায়। ওর দিদির বিয়ে হয়ে গেছে। বাড়িতে বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতো। এমন মর্মান্তিক ঘটনা এর আগে এলাকায় ঘটেনি। ওর কঠিন সাজা হোক যাতে করে এমন ঘটনা পুনরায় না ঘটে।

এছাড়াও চেক করুন

করিমপুর উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর প্রচারে অভিনেত্রী দেবিকা মুখার্জি ও অভিনেতা সুরজিৎ চৌধুরী

স্টিং নিউজ সার্ভিস, নদিয়াঃ করিমপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থী জয়প্রকাশ মজুমদারের সমর্থনে সভা করে গেলেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.