Breaking News
Home >> Breaking News >> কোচবিহারের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির উপরে হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে, আটক ২

কোচবিহারের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতির উপরে হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে, আটক ২

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহারঃ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি নরেন্দ্র চন্দ্র দত্তের উপরে হামলার অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার রাতে মাথাভাঙ্গার সুটুঙ্গা নদীর সেতুর ওপর। তৃণমূলের অভিযোগ, সোমবার রাতে মাথাভাঙ্গা ৯ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি নরেন্দ্র চন্দ্র দত্ত একটি দোকানে জিনিস কিনতে আসে। সে সময় বিজেপি আশ্রিত কিছু কর্মী সমর্থক তাঁর উপরে হামলা চালায়। এবং ওই ঘটনার জেরে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের ফেলে যাওয়া পাঁচটি বাইকে ভাঙচুর করা হয়েছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে মাথাভাঙ্গা থানার পুলিশ। এলাকা উত্তেজনা থাকায় ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। ওই ঘটনার জেরে মাথাভাঙা শহরে ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে। দলীয় সূত্রে খবর অনুযায়ী, মাথাভাঙ্গা থানা ঘেরাও করে দুষ্কৃতিদের গ্রেফতারের দাবিতে আন্দোলন শুরু করেছেন তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। ওই ঘটনায় যুক্ত থাকার সন্দেহে দুই জনকে আটক করেছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আজ রাত ৯ টা নাগাদ মাথাভাঙ্গার সুটুঙ্গা ব্রিজের কাছে একটি দোকানে যায় কোচবিহার জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সভাপতি নরেন্দ্র চন্দ্র দত্ত। অভিযোগ, সেসময় বিজেপির দুষ্কৃতীরা বাইক নিয়ে এসে হামলা চালায় নরেন্দ্র দত্তের উপর। ঘটনার খবর পেয়ে আশেপাশে থাকা তৃণমূল কর্মী সমর্থকরা ছুটে আসলে বাইক ফেলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। মাথাভাঙ্গা শহরে উত্তেজনা থাকায় এলাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনীর পাশাপাশি র্যা ফ নামানো হয়েছে।

ওই ঘটনায় যুক্ত থাকার সন্দেহে দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।
কোচবিহার জেলা ছাত্র পরিষদের সভাপতি নরেন্দ্র চন্দ্র দত্ত অভিযোগ করে বলেন, “আমি চপ খাওয়া জন্য দাঁড়িয়ে ছিলাম। সেসময় বিজেপির দুষ্কৃতীরা বাইক নিয়ে এসে আমার উপর হামলা চালায়। আশেপাশের লোকজন দেখে ছুটে আসতেই বাইক ফেলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা।”

বিজেপির জেলা সভাপতি মালতি রাভা বলেন, “নিজেদের মধ্যে গোষ্ঠী কোন্দলে মিথ্যে বিজেপির নাম জড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমাদের কেউ এমন ঘটনার সাথে জড়িত নয়। সব ওদের নিজেদের গণ্ডগোল। আজকে যেহেতু তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিনয় কৃষ্ণ বর্মণের বিধানসভা এলাকার রুইডাঙ্গা ও লতাপাতা গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যরা বিজেপিতে যোগ দিয়েছে, সেজন্য মাথাভাঙ্গায় নিজেরাই গণ্ডগোল পাকিয়ে বিজেপির নাম খারপ করার চেষ্টা করছে।”

এছাড়াও চেক করুন

জমি দখল করতে রাতের অন্ধকারে বোমা মারার অভিযোগ তৃনমূল নেতার বিরুদ্ধে

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ, কোচবিহার: নিজেদের জমি ফিরে পাবার জন্য এলাকায় রাতের অন্ধকারে বোমা মারার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.