Breaking News
Home >> Breaking News >> নদিয়ার নাকাশিপাড়ায় ৯টি কুকুরকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেললো দুষ্কৃতীরা

নদিয়ার নাকাশিপাড়ায় ৯টি কুকুরকে বিষ খাইয়ে মেরে ফেললো দুষ্কৃতীরা

নবেন্দু ভট্টাচার্যঃ নাকাশিপাড়া (নদীয়া): গত জানুয়ারি মাসে এনআরএস হাসপাতালে ১৬ টি কুকুর খুনের ঘটনার পর আরো একবার কুকুর খুনের সাক্ষী থাকল নদীয়ার নাকাশিপাড়া থানার খিদিরপুর এলাকা। মঙ্গলবার নাকাশিপাড়ার বেথুয়াডহরি এক পঞ্চায়েতের খিদিরপুর পূর্ব পাড়ার বিভিন্ন জায়গায় পড়ে থাকতে দেখা যায় একাধিক কুকুরের মৃতদেহ। এই নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে খবর এলাকায় প্রায় প্রতিটি বাড়ীর সামনেই পুকুর মরে পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসীরা। এরপর আশেপাশে দেখতেই পাওয়া যায় বিষ মেশানো খাবারের সন্ধান। স্থানীয় মানুষজন নাকাশীপাড়া থানায় খবর দিলে নাকাশিপাড়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ঘটনার তদন্ত করে। কুকুরের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নাকাশিপাড়া পশু চিকিৎসা কেন্দ্রে পাঠানো হয়।

জানুয়ারি মাসে এনআরএস হাসপাতালে কুকুর মৃত্যু ঘিরে সারাবাংলা তোলপাড় হয়েছিল। কলকাতায় পশুপ্রেমীদের বিভিন্ন রকম আন্দোলন করতে দেখা যায়। তবে এ দিনের নাকাশিপারার ঘটনায় হতবাক এলাকার মানুষ। তাদের দাবি কে বা কারা এই ধরনের নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের সাস্তি চায়। তবে কিছু দুষ্কৃতিরাই এই ধরনের ঘটনার সাথে যুক্ত আছে বলে মনে করছে এলাকার মানুষ। দুষ্কৃতীদের রাতে যাতে বিভিন্ন রকম দুষ্কৃতী মূলক কাজকর্ম করতে সুবিধা হয় সেই জন্য নিরিহ প্রাণী গুলোকে মেরে ফেলা হয়েছে। অবৈধ কর্মকান্ডের সাথে যোগ খুঁজে পাচ্ছেন অনেকে। স্থানীয়দের মতে ২০০০ সালে একবার এই ভাবে বেশ কয়েকটি কুকুর হত্যা করা হয়। তারপরেই এলাকায় বড় ধরনের ডাকাতির ঘটনা ঘটে। তাই দুষ্কৃতি সংযোগ আছে বলে অনেকে মনে করছেন।

এলাকার বাসিন্দা ও বিজেপি নেতা অনুপ কুমার মন্ডল বলেন, গলায় দড়ি থেকে চৌরাস্তা পর্যন্ত প্রায় কুড়ি পঁচিশ টি কুকুর প্রতিদিন রাস্তায় থাকে। এদের মধ্যে অনেকেই এই কুকুরগুলোকে বাড়িতে খাবার দাবার দেন। অনেকের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। আমার বাড়ীতেও দুটি কুকুর থাকতো। সোমবার রাতে কে বা কারা বিষ মেশানো খাবার খাইয়ে কুকুর গুলোকে মেরে ফেলেছে। রাতের দিকে কুকুরগুলোকে দেখা যায়নি। তারপর সকাল বেলায় দেখা যায় বিভিন্ন বাড়ির সামনে এবং বাড়ির ভিতরে পড়ে থাকতে দেখে যায়। প্রায় ৯ টি কুকুর মারা গেছে। এর সাথে দুষ্কৃতীদের যোগ আছে। এ বিষয়ে আমরা নাকাশীপাড়া থানা লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছি। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। এলাকার আরেক বাসিন্দা রতন রায় বলেন, কুকুরগুলোকে এলাকার মানুষ সকলেই ভালোবাসতো।

অনেকে খাবার দিত অনেকের বাড়িতেই থাকত। হঠাৎ করে এ ধরনের ঘটনায় আমরা হতবাক। কে বা কারা বিষ মেশানো খাবার খাইয়ে দিয়েছে সকালবেলায় কুকুরের মৃতদেহগুলো দেখার পর আমরা খোঁজাখুঁজি শুরু করি। তারপর দেখি রাস্তার ধারে একটি পলিথিন ব্যাগে বিষ মেশানো মাংস ও হাড় ছিল সেগুলো কুকুরকে খাওয়ানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে তদন্ত করে গেছে। আমরা এ ঘটনায় গভীর শোকাহত। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি যাতে হয় সে ব্যবস্থা করা হোক। স্থানীয় গৃহবধূ বিথিকা রায় বলেন, আমাদের পাড়াতেই থাকতো কুকুরগুলি। এই ধরনের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। যারা করেছে তাদের শাস্তি দাবি করছি।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কৃষ্ণনগরের এক পশুপ্রেমী সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এ ধরনের ঘটনা খুবই নিক্কারজনক। কিছু মানুষ হীন মানসিকতায় ভোগে তারা হয়তো এদের থেকে ভয় বা আঘাত পাওয়াতেই এই ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে দুষ্কৃতী যোগ থাকতে পারে। এ ঘটনা তদন্ত হওয়া উচিত এবং দোষীদের শাস্তি হওয়া উচিত। নাকাশিপাড়া পুলিশ সূত্রে জানানো হয় ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ৯টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সেগুলি বেথুয়াডহরি পশু চিকিৎসা কেন্দ্রে ময়না তদন্তের এর জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর বিষয়টি পরিষ্কার হবে। এলাকায় সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হবে। স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে দ্রুতই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এছাড়াও চেক করুন

লোকসভা সংসদীয় কমিটির তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের কমিটিতে নিশীথ

মনিরুল হক,স্টিং নিউজ করসপনডেন্ট, কোচবিহারঃ কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ নিশীথ প্রামানিক লোকসভা সংসদীয় কমিটির তথ্যরপ্রযুক্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.