Breaking News
Home >> Breaking News >> বর্ধমান হাসপাতালে চাঙর ভেঙে আহত দুই জুনিয়র ডাক্তার

বর্ধমান হাসপাতালে চাঙর ভেঙে আহত দুই জুনিয়র ডাক্তার

নিজস্ব সংবাদদাতা: বর্ধমান হাসপাতালের ছাদের চাঙর খসে পড়ে আহত হলেন দুই জুনিয়ার ডাক্তার। বৃহঃস্পতিবার হাসপাতালের নিউ বিল্ডিং তিনতলায় এই ঘটনা ঘটে। ঘটনায় আহতদের সঙ্গেসঙ্গে চিকিৎসা করানো হয়। একজনের মাথায় চোট থাকায় তার সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। এই ঘটনায় এদিন দুপুরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে হাসপাতাল চত্বরে।

হাসপাতালসুত্রে জানা গেছে, এদিন দুপুরে নিউ বিল্ডিঙয়ের তিনতলার ক্লিনিক্যাল ডেমোশট্রেশন রুমে মেডিসিন বিভাগের ৩০ জন পোস্ট গ্রাজুয়েট ট্রেনিদের নিয়ে ক্লাস চলছিল। সেখানে নুরমান আলি সেখ নামে এক হার্টের রোগীকে রেখে আলোচনা করছিলেন মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সোমনাথ দাসগুপ্ত। সেই সময় হঠাৎ ছাদের একটি অংশের চাঙর ভেঙ্গে পড়ে। প্রথমে ফ্যানে লেগে তারপর ওই ভাঙা চাঙর ছাত্রদের গায়ে এসে পড়ে। এই ঘটনায় আহত হন সঞ্জয় সেন, সাত্যকি রায় নামে দুই জুনিয়ার ডাক্তার। সঞ্জয়ের মাথায় আঘাত লাগে। সাত্যকির কাঁধে আঘাত লাগে। ঘটনার পর তাদের চিকিৎসা করানো হয়। সঞ্জয়ের মাথায় সিটি স্ক্যান করানো হয়। যদিও কারও আঘাত গুরুতর নয়।

ঘটনার পর ক্ষোভে ফেটে পড়েন জুনিয়র ডাক্তাররা।তারা সকলে সুপারের ঘরে এসে গোটা ব্যাপারটি তুলে ধরেন। তাদের অভিযোগ, নিউ বিল্ডিং এর বেহাল দশা নিয়ে আগেও অনেকবার জানানো হয়েছিল। কিন্তু কোন লাভ হয়নি। আজও মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারত।নুরমান আলি সেখ নামে যে রোগীকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল তার দাদা জাকির হোসেন জানান। ক্লাস চলতে চলতে হঠাৎ ছাদ ভেঙ্গে ফ্যানে পড়ে, তারপর ওই চাঙর টুকরো টুকরো হয়ে ছাত্রদের গায়ে এসে পড়ে।ঘটনার পরেই রুম ছেড়ে সকলে আমরা পালিয়ে আসি । ভাগ্যক্রমে বাঁচা গেছে। ছাত্র নীলাদ্রী কয়াল, তিয়াস সামন্তরা জানান, লিফট সহ ওই বিল্ডিং এর বেশকিছু জায়গা ভাঙা অবস্থায় রয়েছে। খুব দ্রুত ব্যাবস্থা না নিলে আরও বড় দুর্ঘটনা ঘটে যাবে। ছাত্রদের কথা শুনে তাদের নিয়েই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ডেপুটি সুপার অমিতাভ সাহা। এই ঘটনার পর জরুরি বিভাগ থেকে মেডিসিন বিভাগের জনিয়র ডাক্তাররা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। ঘরের স্থায়ী সমাধান না হলে তারা কাজ বন্ধ রাখবেন বলে হুশিয়ারি দেন। ফলে কিছুক্ষণের জন্য জরুরি বিভাগে মেডিসিন বিভাগের ডাক্তারের অভাব দেখা যায়। যদিও পরে তারা কাজে ফেরেন।

হাসপাতালের ওই বিল্ডিং এর হাল খারাপ তা মানছেন হাসপাতাল কর্তিপক্ষ। বর্ধমান মেডিকেল কলেজের সুপার উৎপল দাঁ জানান, ছাত্রদের দাবী ন্যায্য। ওই ঘরগুলি দ্রুত সংস্কার করতে হবে। আমরা বেশ কয়েকবার ঘরগুলি নিয়ে পি ডাবলু ডি-র সঙ্গে বৈঠক করেছি। এদিন ফের জানানো হয়েছে। দ্রুত কাজ শুরু হবে। আপাতত ওই ঘরে ক্লাস বন্ধ রাখা হয়েছে। ঘটনার জেরে পরিষেবা ব্যাহত হয়নি বলে হাসপাতাল সুত্রে জানানো হয়েছে।

এছাড়াও চেক করুন

কালীগঞ্জে আলিয়া মাদ্রাসা ভোটে জয়ী তৃণমূল

স্টিং নিউজ সার্ভিস, নদিয়াঃ কালীগঞ্জের জানকিনগর আলিয়া মাদ্রাসার নির্বাচনে নির্বাচনে রবিবার ব্যাপক ভোটে জয়লাভ করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.