Breaking News
Home >> Breaking News >> একটা করুণানিধি বাকিটা হাভাতি শোক

একটা করুণানিধি বাকিটা হাভাতি শোক

কল্যাণ অধিকারী: আপনি ভাবছেন এ সময়ে মৃত্যু বোধহয় হোয়াইট কাগজে লেখা সস্থার টিআরপি। চার কাঁধে চেপে এগিয়ে চলেছে মৃত্যু নামক শব্দ। গলার রজনীগন্ধা, পাশে মুঠো করে রাখা মাটিতে ধূপের গন্ধ, ভেসে যাচ্ছে খই পয়সার সাথে রাস্তা ধরে। আগুন পেলেই জ্বলবে চিতা! কুণ্ডলী পাকিয়ে উঠবে কালো ধোঁয়া। মানুষটা বড্ড ভালো ছিল জাতীয় চিরন্তন মুহূর্তের সেই বাচল কথা।

জয়ললিতা হোক বা কয়েক মুহূর্ত আগে প্রয়াত হওয়া এম করুণানিধি। মৃত্যু কালীন চিরাচরিত দৃশ্য আমাদের সকলের সামনেই বর্তমান। তুলসি গাছের তলায় লণ্ঠনের আলো জ্বেলে একাকী পুড়ছে গন্ধ বিধুর ধূপ। ব্যতিক্রম দানা মাঝি’র স্ত্রী। জীবনের কালো মেঘ সরিয়ে দানা মাঝির জীবনে এনে দিয়েছে ভাগ্যবানের হাসনুহানা।

হাওড়া – বৈষ্ণব ঘাটা মিনি বাসের হেলপার ভোর থেকে রাত অবধি গেট চাপরে আওড়ে চলে বাসস্ট্যান্ডের মন্ত্র। জীবন বিমা থাকলেও প্রিমিয়াম না দিতে পেরে কোনক্রমে দু’বার জমা দেওয়া টাকাটাও গেছে। মৃত্যু যদিও বা আসে কাঁদবে শুধুই পরিবার। দু’মুঠো আতপ চাল, কালো তিল, কলা মাখিয়ে মুখে গুজে দেবে। রুটে চলা সবকটা বাস বড়জোর একদিন বন্ধ থাকবে। এরথেকে বেশি হলে বাসের কাঁচে ছবিটুকু লাগাবার পারমিশন দেবে মালিকপক্ষ।

একটা জয়ললিতা বা একটা করুণানিধি আবেগ কতটা গভীর, বঙ্গোপসাগরের নীল জল মেশানো গায়ের রঙা রাজ্য দেখাবে ক’দিন। ধূপের গন্ধ ধেয়ে আসবে দিল্লি ছাপিয়ে এ রাজ্যেও। বেনোজলের আবেগ মিশে যাবে দক্ষিণীদের ইডলি-দোসায়। এ কদিন দক্ষিণের বিমানে টিকিট মেলা দায়। তেলতেলে ফেয়ারেনস ক্রিম মেখে সাদা সালোয়ার কামিজ কেউ আবার সফেদ পাঞ্জাবি পড়ে নামবেন তামিল বন্দরে।

আপনি বাঙালি শ্রাদ্ধ-যোজ্ঞী পাঠ করাবেন কাছা পড়া বামুন এনে। শ’তিনেক মানুষদের পেটে লুচি, ডাটি ওলা লম্বা-লম্বা বেগুন ভাজা, ছোলার ডাল, পটল-আলুর তরকারি মন্ডা মিঠাই সহ ভোজন করাবেন। দেনা মেটাতে চটা সুদ শুনেও ঘার নেরে নগদ নেবেন সোনার গহনা জমা রেখে। ভাবতেই পারেন এ দেশে সব হয়। জেলে রীতিমতো রাজকীয় আরামে থাকতেই পারেন শশিকলা! লালু-জি ছুটি নিয়ে ছেলের বিয়ের পর নাতির অন্নপ্রাশনেও আসবেন। ‘সঞ্জু’ পর্দায় ফিরেছে বায়োপিক হয়ে। রামদেব বাবা মূত্রঞ্জলি আনছেন! চা শ্রমিকদের মজুরি বৈঠক ভেস্তে যাবে জেনেও বাংলা টিভি চ্যানেল চুপ!

তবুও দেহাতি ছেলেটি সাদা ধুতি পড়ে গলায় চাবিকাঠি ঝুলিয়ে ট্রেনে মৃত্যু’র ভিক্ষা করে। সাহায্যর বদলে টিপ্পনি ছুটে আসে তোর বাপ কবার মরে ? হাভাতে দেশে মৃত্যুর আগে মেলে না ওষুধ। পায় না দুমুঠো ভাত৷ মৃত্যুর ঘন্টা বিয়োগের আগেই RIP সঙ্গে রজনীগন্ধা স্টিক সাথে সেন্টের শিশি। একটা জয়ললিতা একটা করুণানিধি বাকি আমাগো মৃত্যু। জারুল গাছটার পাশে বসানো বেনা গাছের গোড়ায় জল ঢালে ওষুধ গায়ে রুকু চুলে।

আমাদের  STING NEWZ  ইউটিউব চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কেঃ https://www.youtube.com/c/StingNewz7  আর প্রতি মুহূর্তে পেতে থাকুন ভিডিও খবরের তাজা আপডেট। 

এছাড়াও চেক করুন

পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের পাঁশকুড়া বাসস্ট্যান্ডে লায়ন্স ক্লাবের ক্লক টাওয়ারের উদ্বোধনে  দেব

পশ্চিম মেদিনীপুর: পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের পাঁশকুড়া বাসস্ট্যান্ডে লায়ন্স ক্লাবের ক্লক টাওয়ারের উদ্বোধন করতে এসে সাংসদ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.