Breaking News
Home >> Breaking News >> জেলা পরিষদ নেতার মহিলাদের নিয়ে দীঘার হোটেলের ভিডিও ভাইরাল হতেই জোর জল্পনা

জেলা পরিষদ নেতার মহিলাদের নিয়ে দীঘার হোটেলের ভিডিও ভাইরাল হতেই জোর জল্পনা

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, হাওড়া: ছিলেন প্রাক্তন উপপ্রধান। ঔদ্ধত্য আর ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে বানিয়েছে নিজের পরিধি। ৫ বছরেই বহু বিতর্কের শিখরে পৌঁছে গিয়েছেন। এবার পঞ্চায়েত ভোটে জেলা পরিষদ টিকিটটি একপ্রকার ছিনিয়ে নিয়েছেন। জিতেওছেন বহু ভোটে। তার পরেই উচ্ছ্বাস জীবনে ভাসতে মহিলাদের নিয়ে পৌঁছে গেছেন দীঘার হোটেলে। উদ্দ্যম নিশিযাপন আর উষ্ণ কথাবার্তা ভিডিও এখন গ্রামীণ এলাকায় মোবাইলে ঘোরাফেরা করছে। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে হাওড়া গ্রামীণে জোর জল্পনা।

হাওড়া গ্রামীণ তৃণমূলের জেলা পরিষদে জেতা প্রার্থী প্রশান্ত মন্ডল। ছিলেন থলিয়া অঞ্চলের প্রাক্তন উপপ্রধান। নিজের করিশ্মায় জেলার নেতাদের কাছে সর্বের সর্বা হয়ে যান। শোনা যায় উপপ্রধান হবার জন্য এক সময় সুলতান আহমেদ নাম পাঠিয়ে দেন জেলার কর্তাদের কাছে। তার পর থেকেই থলিয়া পঞ্চায়েত এলাকায় একের পর এক বিতর্কে নাম চলে আসে। সম্প্রতি থলিয়া-বাকসি খাল কাটার সময় মাটি কোথায় পড়বে কোন এলাকা ভরাট হবে সবকিছু নির্ভর করে এই বিতর্কিত নেতার লিখিত ভিত্তিতে।

সবকিছু বিতর্ক সরিয়ে এলাকায় নিজের উত্থান হতে থাকে নিজস্ব ভঙ্গিমায়। বাকি নেতাদের সরিয়ে নিজেকে এলাকার এক নম্বরে নিয়ে আসেন। একাধিক বিধায়কের কাছের ও কাজের মানুষ হয়ে ওঠেন। তবে বিতর্ক ছিল সবসময় সঙ্গী। এবার দীঘার একটি হোটেলে মহিলাদের নিয়ে গিয়ে বিতর্কের শিরোনামে পৌঁছে গিয়েছেন। এলাকায় মোবাইলে ঘোরাফেরা করছে হোটেলে মহিলাদের নিয়ে মদ্যপান এর ভিডিও। পাশাপাশি রয়েছে ছবি ও একটি মোবাইলে আপত্তিকর কথাবার্তা। যদিও ওই মোবাইলের ভিডিও ফুটেজ, ছবি ও ভয়েস কথাবার্তা সত্যতা স্টিং নিউজ যাচাই করে দেখেনি।

হাওড়া গ্রামীণ এলাকায় এখন এই সমস্ত কাহিনী মোবাইলে ঘোরাফেরা করছে। নেতার পড়েছে অস্বস্তিতে। এই নিয়ে শাসক দলের নেতারা গোপেনে মিটিং করেছে বলেও সূত্রের খবর। এই বিষয় নিয়ে ওই বিতর্কিত নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করবার চেষ্টা করা হলেও ফোনে পাওয়া যায়নি। একাধিক নেতা মুখে কুলুপ এঁটেছেন। নেতার হাত অনেক দূর অবধি রয়েছে বলে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলতে চায়নি। সূত্রের খবর, দীঘার হোটেলের ভিডিও বলে যে ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে তাতে থলিয়া অঞ্চলের আরও দুই প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্যও রয়েছেন।

বিতর্কিত নেতার স্ত্রী ও একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। স্ত্রী সম্প্রতি প্রাইমারী শিক্ষকের চাকরি পেয়েছেন। এই চাকরি পাওয়া নিয়েও কানাঘুষো রয়েছে। এতকিছুর পরেও কিভাবে মহিলাদের নিয়ে হোটেলে গিয়ে একজন জেলা পরিষদ নেতা এমন অসংলগ্ন কাজ করতে পারেন তা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। বিতর্কিত নেতার সহযোগীদের বক্তব্য কেউ এটা ফাঁসানোর জন্য এইভাবে ভিডিও সামনে এনেছে। তবে বিতর্কিত ভিডিও যে বিরোধীদের তুরুপের তাস হয়ে গেছে তা মেনে নিয়েছেন বহু নেতা।

 

আমাদের  STING NEWZ  ইউটিউব চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কেঃ https://www.youtube.com/c/StingNewz7  আর প্রতি মুহূর্তে পেতে থাকুন ভিডিও খবরের তাজা আপডেট। 

এছাড়াও চেক করুন

পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের পাঁশকুড়া বাসস্ট্যান্ডে লায়ন্স ক্লাবের ক্লক টাওয়ারের উদ্বোধনে  দেব

পশ্চিম মেদিনীপুর: পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের পাঁশকুড়া বাসস্ট্যান্ডে লায়ন্স ক্লাবের ক্লক টাওয়ারের উদ্বোধন করতে এসে সাংসদ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.