Breaking News
Home >> Breaking News >> ছাত্রসংসদ দখলকে কেন্দ্র করে তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ, জখম ৪

ছাত্রসংসদ দখলকে কেন্দ্র করে তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ, জখম ৪

নিজস্ব সংবাদদাতা,কোলাঘাটঃ ছাত্রসংসদ কোন গোষ্ঠীর দখলে থাকবে এই নিয়েই তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যপক সংঘর্ষে উত্তজনা ছড়ালো কোলাঘাটে। কোলা ইউনিয়ন হাইস্কুলের মধ্যেই সকালে ক্লাস চলে রবীন্দ্র ভারতী মহাবিদ্যালয়ের। প্রথম থেকেই তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দখলে ছাত্রসংসদটি। বর্তমানে কলেজের ছাত্রসংসদের সাধারন সম্পাদক হিসাবে রয়েছেন সুপ্রকাশ সিং। তবে এই কলেজের ছাত্রসংসদ দখল করবার জন্য বেশ কিছুদিন ধরে কিছু বহিরাগতদের আনাগোনা দেখা যায়। তারা তৃনমূল কংগ্রেসের সক্রিয় কর্মী বলে দাবী করে আসছিলো। তবে তারা কেউই কলেজের ছাত্র নয় বলে অভিযোগ করেন কলেজের সাধারন সম্পাদক সুপ্রকাশ সিং।

বুধবার সকাল থেকেই কলেজ চত্বরে দুপক্ষের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। এরপর পুলিশ সূত্রের খবর এদিন বিকেল পাঁচটার সময় দুপক্ষের নেতৃত্বের মধ্যে সমস্যার সমাধান করার কথাও হয়। এরপর সকাল ১১ টা নাগাদ ছাত্রসংসদের বেশ কয়েকজন নেতৃত্ব কোলাঘাট বীট হাউস থানা থেকে ফেরার সময় হঠাৎই রাস্তার ওপর লাঠি দিয়ে ব্যপক মারধোর চালায় ব্লক তৃনমূল ছাত্রপরিষদের সভাপতি প্রসেনজিৎ দে, ব্লক ছাত্রপরিষদের সাধারন সম্পাদক কার্ত্তিক রাম,এছাড়া নিলাদ্রি সামন্ত,সর্বাত্য ভৌমিককে। এদের ওপর প্রকাশ্যে রাস্তার ওপর লাঠি দিয়ে ব্যপক মারধোর করে বহিরাগতেরা। তবে এই ঘটনায় দুজন বহিরাগতদের ধরে ফেলে কোলাঘাটের ব্যবসায়ীরা। এরা হলেন নাসিউর রহমন,বাবুল মুস্তাক। এদের ব্যবসায়ীরা ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পরে পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করে। তবে আহতদের প্রথমে কোলাঘাট ব্লক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়।দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পরে ছেড়ে দিলেও বাকি দুজন প্রসেনজিৎ দে ও কার্ত্তিক রামের আঘাত গুরুতর।তবে কোলাঘাটের বুকে দিনে প্রকাশ্যে এমন ঘটনা দেখে আশ্চর্য হয়েছে কোলাঘাটবাসী। একেবারে নজিরবিহীন ঘটনা বলে জানালেন কোলাঘাটের ব্যবসায়ী অসিত সাহা।তিনি জানান কোলাঘাট শান্তিপ্রিয় এলাকা।সবাই শান্তি ভাবে এখানে পড়াশোনা করুক এটাই চায় কোলাঘাটবাসী।কোনভাবেই কোলাঘাট অশান্ত করতে দেওয়া যাবে না।এতে করে ছেলেমেয়েদের কলেজে পাঠাতেই ভয় পাবেন অবিভাবকেরা।

তবে এই প্রসঙ্গে কোলাঘাটের তৃনমূল নেতা অসিত বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সঠিক কি কারনে এই ছাত্রসংসদের মধ্যে বিবাদ তা আমরা খোঁজ নিয়ে দেখছি।তবে এই ঘটনা মোটেও কাম্যনয়।তবে বহিরাগতের প্রসঙ্গে জানান,আহত প্রসেনজিৎ দে প্রকৃতপক্ষে সেও রবীন্দ্রভারতী মহাবিদ্যালয়ের ছাত্রনয়।কলেজটি খুব বেশীদিন চালু হয়নি।তবে ছাত্রসংসদ তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দখলেই রয়েছে।বিরোধী কেউ না থাকায় প্রথম থেকেই ছাত্রসংসদ তৃনমূল ছাত্রপরিষদের দখলে বলেই জানান অসিত বাবু।তিনি আরো বলেন কলেজের সুষ্ঠু পরিবেশ যাতে বজায় থাকে সেটার চেষ্টা সবাইকে করতে হবে।

আমাদের  STING NEWZ  ইউটিউব চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কেঃ https://www.youtube.com/c/StingNewz7  আর প্রতি মুহূর্তে পেতে থাকুন ভিডিও খবরের তাজা আপডেট। 

এছাড়াও চেক করুন

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে কাটোয়ার মেঝিয়ারীতে রক্তদান শিবির ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, কাটোয়া : ৭২তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে কাটোয়া ২নং‌ ব্লক তৃনমূল কংগ্রেসের মেঝিয়ারী শাখার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.