Breaking News
Home >> Breaking News >> জিএসের পদত্যাগের দাবিতে পিন্সিপালকে স্মারকলিপি দিল এসএফআই ও সিপি

জিএসের পদত্যাগের দাবিতে পিন্সিপালকে স্মারকলিপি দিল এসএফআই ও সিপি

বিশ্বজিৎ সরকার, স্টিংনিউজ করেসপনডেন্ট, দার্জিলিংঃ  চলতি মাসের ১৩ তারিখে কলেজে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নাম করে আদিবাসী এক ছাত্রের কাছ থেকে ৩০০০ টাকা চাওয়ায় এবং ওই ছাত্র তা দিতে না চাইলে তাকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠে বাগডোগরা কালিপদ ঘোষ তরাই মহাবিদ্যালয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক তরুণ সেন ও তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যের বিরুদ্ধে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে এদিন SFI এবং CP এর তরফ থেকে বাগডোগরা কালীপদ ঘোষ তরাই মহাবিদ্যায়ের কলেজে বিক্ষোভ দেখান। এবং একটি স্মারকলিপি তুলে দেন প্রিন্সিপালের হাতে। এরপর SFI এর জেলা সম্পাদক শঙ্কর মজুমদার বলেন যে
শাসকদলের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জিএস নানারকম দুর্নীতি সঙ্গে যুক্ত। এবং GS তোলাবাজিতেও হাত রয়েছে তার তাই অবিলম্বে GS এর পদত্যাগ করতে হবে।

অনথায় আমরা বৃহত্তর আন্দোলনে নামবো। অপরদিকে CP এর দার্জিলিং জেলার সহ সভাপতি মহম্মদ ইমরান বলেন যে কলেজে যে ঘটনা ঘটেছে এবং এই কাজের সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না কলেজ কর্তৃপক্ষ। তাহলে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে কিসের জন্য। আমরা চাই যারা এই কাজের সাথে জড়িত তাদের গ্রেফতার করতে হবে এবং তাদের কঠোর শাস্তি দেওয়া হোক। তার পাশাপাশি GS তার পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে। এবং যতদিন কলেজ ভোট না হবে ততদিন কলেজের ছাত্রদের নিয়ে কলেজের ইউনিয়ন তৈরি করুক কলেজ কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে কলেজের জিএসের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে ভর্তি করানো ও টাকা না দিলে এক ছাত্রকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে এই বিষয় প্রিন্সিপালকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান যে গত ১৩ তারিখে ভানু জয়ন্তীর দিন কলেজ বন্ধ ছিল। সেই সময় বহিরাগত কিছু ছাত্ররা এসে ফেলিক্স আশুতোষ কুজুর নামে ছাত্রটির কাছে টাকা চাওয়া হয় এবং তার পাশাপাশি তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ পাই আমরা। তবে কলেজের সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে পুলিশ তদন্ত করে দেখছেন। এবং পুলিশ জিএসকে গ্রেফতার করেছে।

তবে দেখা যায় যে সেখানে কলেজের জিএস তরুণ সেন উপস্থিত ছিল না। এবং ভিকটিম ফেলিক্স আশুতোষ কুজুর ছাত্রটি নিজে স্বীকার করেছে যে মারার সময় GS সেখানে উপস্থিত ছিলেন না। এর পাশাপাশি তিনি আরো জানান যে সমস্ত বহিরাগত ছাত্ররা এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে তার বিরুদ্ধে আইনত ভাবে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করা হোক। এই বিষয় নিয়ে শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারকেও জানানো হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করে দেখছেন গোটা বিষয়টি।

অন্যদিকে এই ব্যাপার নিয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যায়নি এবং পরবর্তীতে ফোনে যোগাযোগ করলে তাদের ফোন বন্ধ ছিল।

অপরদিকে কলেজের জিএস তরুণ সেনকে রবিবার আদালতে তোলা হলে আদালত তার জামিন মঞ্জুর খারিজ করে দেন। এবং ১১ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন।

আমাদের  STING NEWZ  ইউটিউব চ্যানেলটি সাবসক্রাইব করতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কেঃ https://www.youtube.com/c/StingNewz7  আর প্রতি মুহূর্তে পেতে থাকুন ভিডিও খবরের তাজা আপডেট। 

এছাড়াও চেক করুন

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে কাটোয়ার মেঝিয়ারীতে রক্তদান শিবির ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, কাটোয়া : ৭২তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে কাটোয়া ২নং‌ ব্লক তৃনমূল কংগ্রেসের মেঝিয়ারী শাখার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.