Breaking News
Home >> Breaking News >> ইউপিএ-২ সরকারের শেষ কটা মাসের ছবি, আজকের মোদী সরকারের মধ্যে লক্ষায়িত !

ইউপিএ-২ সরকারের শেষ কটা মাসের ছবি, আজকের মোদী সরকারের মধ্যে লক্ষায়িত !

 

কল্যাণ অধিকারী

লিখেছেন স্টিং নিউজ -এর বিশিষ্ট সাংবাদিক কল্যাণ অধিকারী
সময়টা মা মাটি মানুষ সরকারের প্রথম অধ্যায়। কেন্দ্রে তখন ইউপিএ-২ সরকার চলছে। প্রায় দিন দেশজুড়ে পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধি। ওই বিষয় কে সামনে রেখে ১৯জন সাংসদ নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ইউপিএ-২ সরকারের উপর ক্রমাগত চাপ বাড়াচ্ছে। এমনকি কেন্দ্রের সরকার ছেড়ে বেড়িয়ে আসারও হুমকি দিচ্ছেন। শেষমেশ কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে আসল তৃণমূল কংগ্রেস। তবুও পেট্রোল ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি কমল না।

কয়েক বছর ধরে যমুনা দিয়ে বয়ে গেছে বহু জল। দিল্লিতে ইউপিএ-২ সরকারের পতনের শেষে এসেছে মোদী সরকার। চার বছরের শাসন কালে মোদী সরকারের বেশকিছু সিদ্ধান্ত আপস করে নিয়েছে আম-আদমি। নোটবন্দি ঘোর কাটবার আগেই এসে গেল বাজারে জিএসটি। চোখেমুখে চাপা আতঙ্ক। তবুও সবকিছু শেষের শুরু বলে মুখ বুজে সহ্য করে নিয়েছে মধ্যবিত্ত পরিবারগুলি। কিন্তু যেভাবে কুড়ি দিনের কাছাকাছি পেট্রোলের দাম বেড়ে চলেছে তাতে করে গৃহিণীর হেসেলে যে আগুন লাগার জোগাড় তা একপ্রকার নিশ্চিত।

কর্নাটক বিধানসভা ভোটের আগে বেশ কয়েকদিন পেট্রোল ও ডিজেল মহার্ঘ হয়নি কার্যত সমান্তরাল ছিল। অথচ ভোটপর্ব মিটতেই শুরু হয়েছে রোজগার পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি। তবে এটা ঠিক শুধু দাম বেড়েছে না দাম কমেছেও পেট্রোলের। যেমনটি বুধবার কমেছে ১পয়সা। আর বৃহস্পতিবার তা থেকে আরও ৭পয়সা। যথারীতি শহরে পেট্রোলের নয়া দাম ৮০ টাকা ৯৮পয়সা। ডিজেলের ৫পয়সা দাম কমে ৭১টাকা ৮০ পয়সা। এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে পরিবহণে। ক্রমশ রুটের বাস কমতে শুরু করেছে। ট্যাক্সি ইউনিয়ন, বাস ইউনিয়ন ভাড়া বাড়াবার জন্য সরকারের মুখপানে তাকিয়ে রয়েছে। বাড়ছে সবজি সহ নিত্য পণ্যের দাম, তবুও দিল্লির চেয়ারে তিনি রয়েছেন নিজের মতো।

১৯-এর লোকসভা ভোটের আগে দেশজুড়ে চারটি লোকসভা ও ১০টি বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনের ফল ঘোষিত হল বৃহস্পতিবার। ফলাফল যে মোদী-শাহ দের যথেষ্ট দুশ্চিন্তায় ফেলে দিল তা একপ্রকার নিশ্চিত বিরোধীরা। কর্নাটক থেকে যে বিরোধী জোট শুরু হয়েছে এ দিনের ফলাফল তা আরও বেশি পোক্ত করল। মাত্র ১টি লোকসভা ও ১টি বিধানসভা আসন জিতেছে গেরুয়া শিবির। দঃ ২৪ পরগনা জেলার মহেশতলা বিধানসভা উপনির্বাচনে প্রায় ৬৩ হাজারের কাছাকাছি ভোটে জিতেছে তৃণমূল। মহেশতলা বিধানসভাটি ডায়মন্ড হারবার লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত। বৃহস্পতিবার মহেশতলায় দাঁড়িয়ে ওই কেন্দ্রের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, মহেশতলার জয় দিয়ে মহালয়া শুরু হল, দশমীটা আমরা দিল্লির বুকে শেষ করে দেব।

সেদিন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজও বাংলার মুখ্যমন্ত্রী উনি। শুধুমাত্র ফারাক সেদিন ছিল ইউপিএ-২ মনমোহন সিং সরকার, আর আজ এনডিএ সরকার তথা মোদী সরকার। যদিও বৃহস্পতিবারের ফলাফল বলে দিয়েছে মোদী সরকার কেন্দ্রে আর একক সংখ্যা গরিষ্ঠ সরকার নয়। এনডিএ সরকারের মুখপাত্র। পেট্রোল-ডিজেলের মতো নিত্য পণ্যের দাম না বাঁধতে পারলে দেশের প্রধানমন্ত্রী চেয়ার টিকে থাকার লড়াইয়ে ছিনিয়ে নিলেও নিতে পারে বিরোধী জোট বাহিনী !

Photo Courtesy: malayalam.oneindia.com
loading...

এছাড়াও চেক করুন

বর্ষার প্রথম বৃষ্টিতে ভাসল কোচবিহার, ঘরে জল ঢুকে ভোগান্তি

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বন্ধুর বাড়িতে বিশ্বকাপ ফুটবল দেখতে গিয়েছিলেন কোচবিহার শহরের ১২ নং …

Leave a Reply

Your email address will not be published.