Breaking News
Home >> Breaking News >> গার্ডদের অসন্তোষ, ট্রেন বাতিল বর্ধমানে

গার্ডদের অসন্তোষ, ট্রেন বাতিল বর্ধমানে

অনির্বাণ হাজরা,বর্ধমান: গার্ডের বাক্স নিয়ে অসন্তোষ তার জেরে বাতিল লোকাল ট্রেন। কাজের দিনে সাত সকালে লোকাল ট্রেন বাতিল এবং বেশ কয়েকটি ট্রেনের সময়সূচী পরিবর্তনে ফলে সমস্যায় পড়লেন যাত্রীরা। একইভাবে হাওড়া ষ্টেশনেও বিক্ষোভের ফলে বর্ধমান এসে পৌঁছল না বেশ কয়েকটি লোকাল ট্রেন। যদিও আন্দোলনকারীদের তরফে জানানো হয় মৌখিক প্রতিশ্রুতি পাওয়ায় তারা বিক্ষোভ থেকে সরে এসেছে।

বর্ধমান ষ্টেশনের গার্ড এবং বক্স পোর্টারদের সুত্রে জানা গেছে, প্রতিটি ট্রেনে গার্ডের কামরায় একটি করে বাক্স থাকে। ট্রেন ছাড়ার সময় সেই বাক্স ট্রলি করে গার্ডের কামরায় পৌঁছে দেয় বক্স পোর্টাররা। এই বাক্স রেলের পরিভাষায় সেফটি- সিকিউরিটি বাক্স নামে পরিচিত। এই বাক্সে প্রাথমিক চিকিৎসার সরঞ্জাম সহ ফ্যাগ, লাইট সহ নানা জরুরি জিনিষপত্র থাকে। ষ্টেশনের গার্ড এবং বক্স পোর্টারদের দাবী এই বাক্স ব্যাবস্থা ব্রিটিশ আমল থেকে চলে আসছে। কিন্তু গত দুই বছর এই বাক্স তুলে দিয়ে রেল গার্ডের কামরায় স্থায়ী বাক্স রাখতে চাইছে। এতদিন চিঠিপত্র করে এই ব্যাবস্থা রুখে দিয়েছিলেন ষ্টেশনের গার্ড এবং বক্স পোর্টারা। কিন্তু অভিযোগ শুক্রবার হঠাৎ রেল একটি নোটিশ জারি করে এই ব্যাবস্থা কার্যকর করার সিন্ধান্ত নেয়। এর জেরে শনিবার সকাল থেকে ষ্টেশনের গার্ড এবং বক্স পোর্টারদের বিক্ষোভ শুরু হয় বর্ধমান ষ্টেশনে। বিক্ষোভ হয় হাওড়া স্টেশনও। জনা কুড়ি বক্স পোর্টার এবং গার্ডদের একাংশ এই বিক্ষোভে সামিল হয়। গার্ডদের দাবী এই সিস্টেম চালু করা হলে স্থায়ী বাক্স থাকলে প্রতিবার ট্রেন আসা যাওয়ার সময় প্রতিটি গার্ডকে বাক্সের সব জিনিষ মিলিয়ে দেখতে হবে।যা বেশ সময়সাপেক্ষ। এই ব্যবস্থার ফলে ট্রেন লেট হবে যাত্রীরা সমস্যায় পরবেন। বক্স পোর্টারদের দাবী, এই ব্যবস্থা কার্যকর হলে তারা কাজ হারাবে এবং তাদের সংসার নিয়ে পথে বসতে হবে। এই উদ্ভূত সমস্যার ফলে বক্স ছাড়া কাজে যোগ দেয়নি ষ্টেশনের গার্ড এবং বক্স পোর্টারদের একাংশ। বাতিল হয় সকাল ৭ টার বর্ধমান ব্যান্ডেল লোকাল। ইস্টার্ন রেলওয়ে মেন’স ইউনিয়নের শাখা সম্পাদক অভিজিৎ চ্যাটার্জী বিক্ষোভের সময় জানান, এই ব্যাবস্থা চালু হলে একই সঙ্গে যাত্রী এবং কর্মী সকলের সমস্যা হবে। একই সঙ্গে তিনি এটাও জানান, সকালে একটু সমস্যা হয়েছিল, কিন্তু বিষয়টি নিয়ে আপতত আলোচনার আশ্বাস দেওয়ায় যাত্রী পরিষেবার কথা মাথায় রেখে তারা কাজে যোগ দিয়েছেন। বক্স পোর্টার মহম্মদ জাফর ইমাম বা অভিজিৎ বোলে জানান, রেল তাদের কথা চিন্তা না করেই সিধান্ত কার্যকর করলে তারা বৃহত্তর আন্দোলন করবেন।

এই বিষয়ে বর্ধমানের ষ্টেশন সুত্রে জানানো হয়েছে, এই বিষয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। এখন আপাপত শুধুমাত্র ই.এম.উই. লোকালে এই ব্যাবস্থা চালু হচ্ছে, বাকি সব ট্রেনেই পুরানো সিস্টেম চলছে এবং তা জারি থাকবে। রেল সুত্রে আরও জানানো হয়েছে, ইস্টার্ন রেলে মাত্র ৫২ টি রেক আছে, সেই গুলি বিয়ে ৪৫০টি টিপ চালানো হয়। যাত্রী পরিষেবা দ্রুত করার জন্যই এই ব্যাবস্থা কার্যকর করা হয়েছে। বক্স পোর্টারদের দাবীো ভিত্তিহীন বোলে রেল জানিয়েছে শুধু ই.এম.উই. লোকালে এই ব্যবস্থা চালু হয়েছে বাকি সব ট্রেনেই পুরনো বাবস্থা থাকছে ফলে কাজ হারানোর কোন সম্ভাবনা থাকবে না। বর্ধমান ষ্টেশনের মানেজার স্বপন অধিকারী জানান, “হাওড়া থেকে ট্রেন কম আসায় বর্ধমান ব্যাল্ডেল লোকাল বাতিল করা হয়েছে, বাকি ২টি লোকালের সময় সুচীর সামান্য পরিবর্তন করে পরিষেবা ঠিক রাখা হয়েছে। আপাতত সমস্যা নেই। “

loading...

এছাড়াও চেক করুন

বিধাননগরের পাথুরিয়াতে অনুষ্ঠিত হল বিনামূল্যে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির ও দুঃস্থদের বস্ত্র বিতরন

বিশ্বজিৎ সরকার, স্টিংনিউজ করেসপনডেন্ট, দার্জিলিংঃ শিলিগুড়ির মহকুমার ফাঁসিদেওয়া ব্লকের বিধাননগর ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের পাথুরিয়া …

Leave a Reply

Your email address will not be published.