Breaking News
Home >> Breaking News >> দশ হাত এক সাথে

দশ হাত এক সাথে

ঋদ্ধি ভট্টাচার্য,কলকাতাঃ যতদিন যায় জীবন ততোই ব্যাস্ত থেকে ব্যাস্ততম হয় ওঠে আর ঠিক একই ভাবে তাদের জীবনের মধ্যে একটি নিরিবিলিতে সময় কাটানো বা বন্ধু-বান্ধব-দের সময় দেওয়া খুবই দুষ্কর।এমনকি সময় বার করে মাল্টিপ্লেক্স বা শপিং মল-এ যাবার সময় ও পায় না আর সিনেমা দেখার জন্য যে সময় বার করতে হয় সেটা “ডুমুরের ফুল” রূপে পরিণত হচ্ছে যে সেটা বোঝাই যাচ্ছে সময়-এর সাথে সাথে। মানুষজন আজকাল ক্রমশ স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবির দিকে ঝোক দিচ্ছে আর সেদিক দিয়া দেখতে গেলে এইরকম প্রচুর ছবি মুক্তিও পাচ্ছে আর দেবেই না বা কেন ? বাড়িতে বসেই দেখা হয় যাই কিছু সময় এর মধ্যেই ছবি গুলি এবং শুধু তাই নয় এই গুলি থেকে অনেক সামাজিক ভাব মূর্তি ফুটে ওঠে।ঠিক এই ধরণের দর্শকদের জন্যই গত ২০১৪ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে হাওড়ার বি-গার্ডেন-এর ছেলে সৌম্য মৈত্র।পরিচালক হিসেবে উপহার দিয়াছেন ১০ খানা বিভিন্ন স্বাদের শর্ট-ফিল্ম।তার প্রথম নিবেদিন “টি-ব্রেক” যেটি এক দরিদ্র চাওয়ালার জীবনের লড়াই ও সংগ্রাম এর কথা শহরের পার্কে বসা দুজন প্রেমিক প্রেমিকার কাছে তুলে ধরেছে।এছাড়াও “পিঙ্কা”-তে এক সমকামী ছেলের সমাজের চাপে , দাদা কে চিঠি লিখে বাড়ি ছেড়ে নিরুদ্দেশে চলে যাওয়ার গল্প নিয়ে মনস্থিত হয়েছে।২০১৫ সালে তার একটি মাত্র ছবি “নন-সেন্স”-এ ফুটিয়ে তুলেছে রিশেশাণ এর জন্য এক ছেলের চাকরী চলে যাওয়া ও সেই অবস্থায় তার মৃত বন্ধু কে মনে পরার গল্প । এছাড়াও কলেজ জীবনে ছাত্র আন্দোলনের খারাপ প্রভাব এবং এর ফলে দুই বন্ধুর সম্পর্কে ছেদ এর গল্প ফুটে উঠেছে “ব্যারিকেড”-এর মাধ্যমে।বিয়ে তো সবাই করে কিন্তু যখন একই ধর্মের মানুষজন বিয়ে না করে দুটি বিভিন্ন ধর্মের মানুষজন বিয়ে করে তখন তাদের ভবিষ্যৎ চিন্তা-ভাবনা এবং সমস্যাকে নিয়ে একসাথে ফুটিয়ে তুলেছে “রীতি”-র মাধ্যমে। “বাংলা বন্ধ”-এ বাঙালীর বাঙলা ভাষা কে দেখে লজ্জা পাওয়ার একটি সারকাসম কে তুলে ধরা হয়ছে।“ঐ ভিনদেশী তারা”-তে পথ নিরাপত্তা কে কেন্দ্র করে একটি মিষ্টি প্রেমের গল্প তুলে ধরা হয়ছে যেটি প্রচুর দর্শকদের থেকে কুর্নিশ পেয়েছেন।২০১৭ সালে শুভম চৌধুরিপরিচালিত ছবি “সেলফিশ”-এ তিনি নিজে অভিনয়ও করেন এবং শুধু তাই নয় সেটার মাধ্যমে আধুনিক জীবনে স্মার্ট ফোন-এর ব্যবহার মানুষের মানসিকতা কতোটা খারাপ করতে পারে তার গল্প। এই ছবিটি পরে বর্ধমান শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এবং চিত্রবাণী শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এ মনোনীত হয় এবং এ ছাড়াও হাওড়া আন্তর্জাতিক শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-এর পক্ষ থেকে সেরা পোশাক এর জন্য পুরস্কৃত হয় ওই একই সালে ।তার এই বছরের বানানো প্রথম ছবি “ইনসাফ কোথায় !!” মূলত বোঝানো হয়ছে শিক্ষা ও জীবিকা ক্ষেত্রে ভারতবর্ষের এক জ্বলন্ত সমস্যা সংরক্ষণ।এই সমস্যা এবং তার সমাধান তুলে ধরা হয়েছে এই গল্পে।তার আসন্ন ছবি সুনীল বাবুর একটি ছোটো গল্প দ্বারা অনুপ্রাণিত এই ছবি।“ এক আকাশের নীচে” সিরিয়াল খ্যাত সৌগত সরকার এবং এই মুহূর্তে টেলিভিশন এর জনপ্রিয় নায়িকা সুস্মিতা রায় জুটি বেঁধেছেন এই রোম্যান্টিক শর্ট ফিল্মটি বানানো চলছে। এটি একসাথে তাদের প্রথম কাজ এবং দুজনে ভীষণ উৎসাহিত।এটি ভালোবাসার গল্প ঠিক নয় কিন্তু এটা অনেকটা ভালোবাসার মতো আর বাকিটা জানতে দর্শক দের অপেক্ষা করতে হবে ছবি মুক্তি পর্যন্ত। এই ছবির নামকরণ করা হয়ছে “ভালোবাসার মতো”।

loading...

এছাড়াও চেক করুন

লায়ন্স ক্লাব অব রানাঘাট পশ্চিমের উদ্যোগে উদ্বোধন হল বৃদ্ধাশ্রম “বানপ্রস্থ”

কমল দত্ত,নদিয়া: বর্তমান সমাজে বেশীরভাগ পরিবারের ছেলে মেয়েদের কাছে একটা বড় বোঝা তাদের বাবা মা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.