Breaking News
Home >> Breaking News >> হাওড়ায় মাদকাসক্ত ছেলে, টাকার জন্য শেষমেশ বৃদ্ধা মাকে খুন করল!

হাওড়ায় মাদকাসক্ত ছেলে, টাকার জন্য শেষমেশ বৃদ্ধা মাকে খুন করল!

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, হাওড়া: মাদকাসক্ত হয়ে পড়ায় টাকার দরকার ছিল প্রতিদিন, কাজকর্ম করত না, দিনের পর দিন বৃদ্ধা মায়ের পক্ষে টাকা মেটানো সমস্যায় পরিণত হয়েছিল। টাকা না পেলেই বৃদ্ধা মায়ের উপর চড়াও হত গুণধর ছেলে। শেষমেশ শুক্রবার সেই মায়ের মৃতদেহ উদ্ধার হল ঘর থেকে। মৃতার নাম শোভা ভৌমিক(৫৫)। হাওড়া থানা এলাকার ৫ নম্বর আইনুদ্দিন মুন্সি লেনে বাস করতেন। ঘরে বিবাহিত সন্তান। তবে দিনের পর দিন অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বৌমা শ্বশুর ঘর ছেড়ে বাপের ঘরে উঠেছে। বাড়িতে মায়ের কাছেই থাকত অভিযুক্ত যুবক অভিজিত। প্রায়শই ঘর থেকে চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পেত প্রতিবেশীরা। আজ সকালে বাড়িতে আয়া এসে শোভা দেবীর মৃতদেহ দেখতে পান। পরে হাওড়া থানার পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শোভা দেবীর পুত্র অভিজিত কোন কাজকর্ম করত না। মাদকাসক্ত হয়ে পড়ায় মায়ের কাছ থেকে টাকা চাইত, না পেলেই চলত অশান্তি এমনকি মাকে মারধরও করত। স্ত্রীকেও রেয়াত করত না। তাকেও প্রায় সময় মারধর করত। যার জেরে শ্বশুর ঘর ছেড়ে বাপের বাড়ি বাকসাড়ায় চলে যায়। মায়ের নামে থাকা পৈত্রিক কাপড়ের দোকানটি বেচে দেওয়ার জন্য খদ্দের দেখছিল অভিজিত। এ কথা জানতে পারেন মা শোভাদেবী। দোকান না লিখে দিতে চাওয়ায় অত্যাচারের মাত্রা বেড়ে গিয়েছিল। এ দিন সকালে বাকসাড়ায় শ্বশুর ঘরে যায় অভিজিত। স্ত্রীকে নিয়ে যেতে জোরাজুরি করতে থাকে। স্বামীর কথায় একবারের জন্যও মন গলে না স্ত্রীর। তার পরে শ্বশুরবাড়িতে ফোন করে শাশুড়ির মৃত্যুর ঘটনা জানতে পারে। খবর শুনে শ্বশুর বাড়ি চলে আসেন অভিজিতের স্ত্রী। ততক্ষণে খবর পৌঁছেছে হাওড়া থানায়। পুলিশ এসে দেহ উদ্ধার করে, তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে অভিজিতকে। খুনের মামলায় অভিযুক্ত হিসাবে আজ হাওড়া আদালতে তোলা হয় অভিজিতকে।

loading...

এছাড়াও চেক করুন

পূর্ব বর্ধমানের রায়নায় খুনের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১৫ জন

স্টিং নিউজ সার্ভিস:   পূর্ব বর্ধমানের রায়নায় খুনের ঘটনায় ১৫ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলো।ইদের দিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.