Breaking News

আজিজুলকে নিয়ে গর্বিত চন্দনপুর গ্রামের বাসিন্দারা

নব্যেন্দু ভট্টাচার্য, নাকাশীপাড়া:  সংসারে শুধুই অভাব। বাবা বিদেশে শ্রমিকের কাজ করেন এবং তাত বুনে সামান্য রোজগার মায়ের। বাড়ির সন্তানদের ভবিষ্যতের কথা মাথায় রেখে বাবা শ্রমিকের কাজ নিয়ে পাড়ি দিয়েছেন আরব দুনিয়ায়। সেখান থেকেই নদিয়ার নাকাশীপাড়ার চন্দনপুর গ্রামের বাসিন্দা চাঁদের সেখ ছেলে আজিজুল সেখের সাফল্যের কথা শুনেছেন। এই বছর হাইমাদ্রাসা আলিম পরীক্ষায় ৭৭৫ নম্বর (৮৬.১%) পেয়ে রাজ্যের মধ্যে সম্ভাব্য অষ্টম স্থান অধিকার করেছে।

আজিজুল মুর্শিদাবাদের হুসেননগর দারুল উলুম সিনিয়র হাইমাদ্রাসার ছাত্র।

আজিজুল তিন ভাই বোনের মধ্যে দ্বিতীয়। বড় ভাই এই বছর স্থানীয় মুড়াগাছা হাইস্কুল থেকে বিজ্ঞান বিভাগ নিয়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। বোনও সুধাকরপুর হাইস্কুল থেকে চলতি বছরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। মা সেখ আলেমা বিবি তাঁত বুনে সামান্য আয় করেন।

আজিজুলের বাবা আগে কেরলে রাজমিস্ত্রির জোগালের কাজ করতেন। দুই বছর আগে কেরলের কাজ ছেড়ে দিয়ে আরবে গিয়েছেন। ছেলেদের পড়াশুনার খরচ চালাতে গিয়ে বাড়িতে ইঁট পর্যন্ত পড়েনি। দুই কামরার পাটকাঠির বেড়া  ও টিনের ছাউনিই ভরসা।

রেজাল্ট নিয়ে খুশি আজিজুল। তাঁর কথায়, ভাল লাগছে ভাল ফল হয়েছে, তবে আরও ভাল ফল হবে বলে আশা করেছিলাম।

আজিজুল বর্তমানে হাওড়ার আজাদ এজাডেমীতে বিজ্ঞান বিভাগ নিয়ে  একাদশ শ্রেনীতে ভর্তি হয়েছে। ওরা মাসিক তিন হাজার টাকা নিচ্ছে অনেকটাই বেশী জানান আজিজুল সেখ। অভাবের সংসারে থেকে শুধুই স্বপ্ন দেখেছে। অবশেষে সাফল্য পেলেও এখনো অনেক পথ বাকী, তাই সাবধানে পা ফেলতে চায় আজিজুল। তার ইচ্ছে ডাক্তার হওয়া। নুন আনতে পান্তা ফুরানো  সংসারে দিন রাত বাবা-মা,র অক্লান্ত পরিশ্রমে তার এই সাফল্যে গর্বিত গোটা চন্দনপুর গ্রামের মানুষ।

আজিজুলের সাফল্যের কথা শুনে তার বাড়িতে ছুটে গিয়েছেন নাকাশিপাড়ার বিডিও, ছুটে গিয়েছেন বিল্বগ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান দূর্গা দাস। বাড়ির পরিস্থিতি দেখে বিডিও সরকারী প্রকল্পের একটি ঘর দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। তার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রও ইতিমধ্যে বিডিও অফিসে জমা পড়ে গিয়েছে। স্থানীয় বিধায়ক কল্লোল খাঁ শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আজিজুলকে।

আজিজুলকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন স্থানীয় বিল্বগ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান দূর্গা দাস। ছবি: স্টিং নিউজ

 

To get regular News Update please like our Facebook Page , Follow us on Twitter and us  join us at Google+. Now you can also download our Android App form Google Play. 

Check Also

ভিক্ষুকরা স্মারকলিপি দিল কালিয়াগঞ্জের ব্লকে

  পিয়া গুপ্তা, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, উত্তর দিনাজপুর: হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ, কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *