Breaking News
Home >> Breaking News >>  যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু ক্লাস্টার প্রকল্পের কাজ

 যুদ্ধকালীন তৎপরতায় শুরু ক্লাস্টার প্রকল্পের কাজ


পিয়া গুপ্তা,  স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট,উত্তর দিনাজপুর: একটা সময় গুনমান ও সংখ্যাতত্ত্বের ভিত্তিতে উত্তর দিনাজপুর জেলার যতগুলো সরিষার তেল মিল চলছিল তাতে কালিয়াগঞ্জ কে বলা হয দ্বিতীয় কানপুর।কিন্তু কালিয়াগঞ্জের অসাধু তেল মিল মালিকদের অসাধু বাবসাযী তাঁদের উত্পাদিত সরিষার তেলে ভেজাল রমরমা ভাবে করার এখানকার সরিষার তেলের সুনাম আস্তে আস্তে হারিয়ে যেতে থাকে।ফলে এখানকার বাবসা প্রচন্ড্ ধাক্কা খায় ।এরপর আস্তে আস্তে এখাকার বহু সরিষার তেলমিল বন্ধ হয়ে যায় ।যে কয়টি মিল সচ্ছতার সঙ্গে চলে তাও বা আবার বাজারে সরিষার তেলের সুনাম খারাপ থাকায় সেগুলিও বাবসা প্রায় লাটে উঠার জোগাড় ।ফলে এখানকার সরিষার তেল মালিকেরা এখানকার সরিষার তেল শিল্পকে আবার পুনর্জীবন করার লক্ষ্যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানাজি র   দারস্থ হয।পরবতীর্তে 2015 সালে জেলার গোয়ালপোখরে এসে এখানকার এই সরিষার তেলের হৃত গৌরব ফিরিয়ে আনার জন্য গোয়ালপোখরের ক্লাসটার প্রকল্পের শিলান্যাস করেন।আজ সেই প্রকল্পের কাজ চলছে মুস্তফানগরে দ্রুততা  র সঙ্গে ।ফলে খুশি কালিয়াগঞ্জের মানুষ ।

কালিয়াগঞ্জের ক্লাসটার প্রকল্পের অন্যতম এক সদস্য তথা রাজ্য তৃণমূল সরকারের এক সদস্য অসীম ঘোষ জানান কালিয়াগঞ্জে একসময় সরিষার তেলের গুণগতমান ও অধিক উত্পাদনের জন্য কানপুর বলা হলেও কিছু অসাধু তেল মালিকদের জন্য এই শিল্পের ব্যঘাত লাগে।ফলে আর যারা সচ্ছতার সঙ্গে এই শিল্প কে বাঁচিয়ে রাখতে চেয়েছিল তাঁদের ব্যাবসাও মার খায় ফলে কালিয়াগঞ্জের সুনাম ও নষ্ট হয় ।বহু শ্রমিক এখানকার বেকার হযে পরে।এই শিল্পের বহু কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে ।   

এদিকে উত্তর দিনাজপুর জেলার শিল্প কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার সূনিল সরকার বলেন কালিয়াগঞ্জের মস্তাফানগরে যেভাবে এই প্রকল্পের কাজ চলছে তাতে খুব শীঘ্রই এই প্রকল্প টি চালু হয়ে যাবে।কাজ যেভাবে চলছে তাতে আগামী তে যে এখানকার সরিষার তেলের সুনাম যে ফিরে আসবে তা বলাই যেতে পারে।

Check Also

বোলপুরের মহিদাপুর গ্রামে পথ দুর্ঘটনায় মৃত এক

দেবস্মিতা চ্যাটার্জ্জী, বীরভূম: বোলপুরের মহিদাপুরে মোটর বাইকের ধাক্কায় মৃত্য হল একজনের, আরেকজন গুরুতর আহত অবস্থায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.