Breaking News
Home >> Breaking News >> ফাঁসিদেওয়া ব্লকে পঞ্চায়েত সমিতি হাতছাড়া  সিপিএমের

ফাঁসিদেওয়া ব্লকে পঞ্চায়েত সমিতি হাতছাড়া  সিপিএমের

বিশ্বজিৎ সরকার, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, দার্জিলিংঃ সিপিএমের হাতছাড়া হল ফাঁসিদেওয়া পঞ্চায়েত সমিতি। গতকাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিশ্বজিৎ নন্দী শিলিগুড়ি মহকুমাশাসক সিরাজ দানেশ্বরের কাছে পদত্যাগপএ জমা দেন। এর পর বিশ্বজিৎ নন্দী বলেন যে আমরা পঞ্চায়েত সমিতিতে সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছিলাম। আমাদের কাজ করতে গিয়ে অনেক বিভিন্ন বাধা মুখে পড়তে হচ্ছিল। তাই এলাকার মানুষের কথা ভেবেই পদ থেকে সরে দাঁড়ালাম। সভাপতির পদ ছাড়লেও তিনি দল বদল করছে না বলে জানিয়েছেন। যখন তাকে প্রশ্ন করা হয় যে তাহলে কি আপনি অন্য কোন দলে যোগ দেবার ভাবনা চিন্তা কি রয়েছে? তখন বিশ্বজিৎ নন্দী বলেন ‘আমি দীর্ঘদিনের বামপন্থী ছাত্র আন্দোলন এবং পরে যুব আন্দোলন করেছি। বামপন্থী দলে ছিলাম,এখানেই থাকবো। এর পর যখন আবার প্রশ্ন হয় যে শাসক দল কি কোন ভাবে তার উপর চাপ সৃষ্টি করছেন তখন বিশ্বজিৎ বাবু সেই বিষয়ে কেমেরার সামনে কিছু বলতে চাই নি কিন্তু কিছুক্ষণ পর জানান যে চাপতো অবশ্যই ছিল। এর পাশাপাশি শিলিগুড়ি মহকুমা পরিষদ থেকে কাজের জন্য টাকা বরাদ্দ করা হত সেই টাকা দিয়ে কোন কাজ করতে দেওয়া হত না এই অভিযোগটি মৌখিক ভাবে জানান। এর পর সিপিএমের জেলা সম্পাদক জীবেশ সরকার অভিযোগ করেন যে গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস একটিও পঞ্চায়েত সমিতির দখল করতে না পারলেও তারা পরবর্তী সময়ে জবরদখলের রাজনীতিতে নামেন। ফাঁসিদেওয়াতেও সেটাই হয়েছে। তাই সভাপতিকে কোন কাজ করতে দেওয়া হচ্ছিল না। সেই জন্য মানুষের স্বার্থে দলেন অনুমতি নিয়ে বিশ্বজিৎ নন্দী পদত্যাগ করেছেন। এই অভিযোগ একেবারেই ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন  মহাকুমা পরিষদের বিরোধী দলনেতা কাজল ঘোষ। তিনি বলেন পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিশ্বজিৎ নন্দী কাজ করতে পারছিলেন না তাই তিনি স্বইচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন। আমাদের দল থেকে কোন চাপ দেওয়া হয়নি। সূত্রের খবর যে আজ বিডিও অফিসে সহ সভাপতি ভোটাভুটি হয় এবং ভোটে নির্বাচিত হন মামলা কুজুর।

Check Also

বর্ধমানের জাতীয় সড়কে হাইওয়েতে হাই থ্রিলার, চালক খুন! তারপর…

সুপ্রকাশ চৌধুরী,স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট,বর্ধমানঃ হাইওয়েতে হাই থ্রিলার, বাস্তবে হিন্দী সিনেমার চিত্রনাট্য। বলা ভালো সোমবার রাতে বর্ধমানের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.