Breaking News
Home >> Breaking News >> সাঁওতাল রমনীর যৌবনের বিজ্ঞাপনে উত্তাল গোটা জঙ্গলমহল, প্রতিবাদ সোস্যাল মিডিয়াতেও

সাঁওতাল রমনীর যৌবনের বিজ্ঞাপনে উত্তাল গোটা জঙ্গলমহল, প্রতিবাদ সোস্যাল মিডিয়াতেও

zzxaxavc

শান্তনু দাস, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, পুরুলিয়া:  রাজ্য সরকার যেখানে রাজ্যের পর্যটনকে বিশ্বমানের করে তুলতে চাইছে,বিশ্ববাংলাকে যেখানে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী, সেখানে পুরুলিয়ায় বেড়াতে গেলে সাঁওতাল রমণীকে উপভোগ করার অফার দেওয়া হচ্ছে !  তাও আবার প্রকাশ্যে-বিজ্ঞাপনে এক বড়সড় নামকরা পত্রিকায় !যেখানে প্রকাশ্যে সাঁওতাল রমণীদের শরীর অফার করা হয়েছে পর্যটকদের জন্য। বলা হয়েছে পুরুলিয়ায় বেড়াতে আসুন।পাবেন সাঁওতাল রমণীর উদ্দাম যৌবনের ছৌঁয়া।

পর্যটক টানতে এবং চটজলদি বুকিং পাওয়ার লক্ষ্যে সাঁওতাল রমনীর যৌবনের প্রলোভন দেখিয়ে এই বিজ্ঞাপনে, সোমবার থেকেই প্রতিবাদের ঝড় উঠতে শুরু করেছে সোশাল মিডিয়ায় সহ গোটা জঙ্গল মহল আদিবাসী সম্প্রদায়ের ঘরে ঘরে। শুধু তাই নয় বিজ্ঞাপন দেওয়া সেই সংবাদপত্রকে আগুনে পুড়িয়ে প্রতিবাদে এগিয়ে আসছে একে একে সাঁওতাল সম্প্রদায়ের মানুষেরা, এগিয়ে আসছেন সাঁওতাল রমনীরা। আজ পুরুলিয়া জেলার রঘুনাথপুর ও বান্দোয়ানের চিলা সহ জেলার বিভিন্ন প্রান্ত এছাড়াও গোটা জঙ্গলমহল সম্প্রদায়ের মা-বানেরা বাঘিনীর রূপে বিজ্ঞাপন দেওয়া সেই সংবাদপত্রকে আগুনে পুড়িয়ে প্রতিবাদে ঝাঁপিয়ে পড়তে দেখা গেল।

সোশাল মিডিয়ায় প্রবেশ করলেই এখন দেখতে পাওয়া যাচ্ছে, ‘সাহস কোথায় পায় সেই জঘন্য জানুয়ারেরা সাঁওতাল রমনীদের যৌবনকে নিয়ে পর্যটক টানার। ‘সেই বিজ্ঞাপনদাতাকে হাতে পেলে সেই সংবাদপত্রের মতো তাদেরকেও পুড়িয়ে রেখে দেব’। আবার কারও পোস্টে দেখা যাচ্ছে প্রশাসন না ব্যবস্থা নিলে আমরা পথে নামবো আর আমরা পথে নামলে সেই বিজ্ঞাপনদাতা আর বেঁচে থাকবে না। এ কেমন বিজ্ঞাপনের ভাষা…..? সাঁওতাল রমণীদের তাহলেকি বিজ্ঞাপনদাতারা এই চোখেই দেখেন….?

শীকারকুহু সাঁওতাল অট্রেষ্ট্রা পার্টির প্রেসিডেন্ট মতিলাল হাঁসদা (জীবনপুর) জানান,” রমনীর দেহ নিয়ে যারা ব্যবসা করতে চাইছে তারা কি আজ ভুলে গেছে কোনও না কোনও রমনীর গর্ভ থেকেই ওই ব্যবসায়ীর জন্ম।রমনী সকলেরেই রমনী। ধিক্কার জানাই এইরূপ নক্কার জনক বিজ্ঞাপন দিয়ে যারা ব্যবসা করতে চাইছেন তাদেরকে। সঙ্গে সঙ্গে সাবধান করি তাদের। মনে রাখবেন ও…. ব্যবসায়ীর দল…. সাঁওতালেরা বনে হিংস্র প্রাণীদের সঙ্গেও লড়াই করার সাহস রাখে। এবং যতই সে হিংস্র হয়ে থাকুক তাঁকে শিকার করেই বাড়ি ফিরে।”

অপরদিকে বিশিষ্ট কবি অভিমুন্য মাহাতো জানান, “বিষয়টি খুবেই নিন্দনীয়।শুধু সাঁওতাল রমনী নয় যেকোনও রমনীকে নিয়ে কেউ যদি এরূপ ছিনিমিনি খেলার চেষ্টা করে তাদের ছেড়ে কথা বলা হবেনা। এই বিষয়টি ফোনের মাধ্যমে পুরুলিয়া জেলা পুলিশ সুপার রুপেশ কুমারকেও জানানো হয়েছে। তিনি বিষয়টি দেখবেন বলে জানিয়েছেন। তবে আন্দোলন এখন শুধু সোশাল মিডিয়ায় আলোড়ন ফেলেছে এবার পথে নেমে রাস্তায় রাস্তায় আন্দোলন আলোড়ন ফেলতে চলেছে। বিজ্ঞাপন দাতার বিরুদ্ধে নেওয়া হবে আইনত ব্যাবস্থা। যারা এই কাজ করেছে তাদের ধিক্কার জানায় নিজের মা-বোনদের দেহ নিয়ে এই ভাবে ছিনিমিনি খেলাতে।”

অন্যদিকে পুরুলিয়া জেলার বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কমলাকান্ত হাঁসদা (আদ্রা) জানান,” বিষটির তিব্র প্রতিবাদ জানায় সঙ্গে সঙ্গে সাবধানও করতে চাই, আমাদের আদিবাসী মা-বোনদের নিয়ে এইভাবে ছিনিমিনি খেলবেননা নয়তো সেই খেলার ফল কি হতে পারে তা সরাসরি দেখিয়ে দেব। আন্দোলন শুরু হয়েছে কোথায় শেষ হবে তা জানা নেই। তবে তাদের আইনত ব্যাবস্থা নেওয়ার দাবি রাখছি প্রশাসনের কাছে।”

মানবাজার ১ নং ব্লকের তৃনমুলের SC/ST সেলের প্রেসিডেন্ট গুরুপদ টুডু (মানবাজার) জানান, বিষয়টি চোখে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিজ্ঞাপন দাতাদের ফোন করি। তাদের কাছে জবাব চাওয়া মাত্রই ভুল হয়েছে বলে ক্ষমা চেয়ে নেন। পরবর্তী সংখ্যায় সংশোধনী কলমেও ছাপার আশ্বাস দেন। যাইহোক বিষয়টি খুবই নিন্দনীয়।

পুরুলিয়ারই ওই বিজ্ঞাপনদাতা সংস্থার সুমিত বিশ্বাসকে ফোন করা হলে তিনি স্বীকার করতে বাধ্য হন যে বিজ্ঞাপনটি পর্যটক টানতেই দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এটা ভুল হয়ে গেছে। পর্যটক টানতে এবং যাতে চটজলদি বুকিং পাওয়া যায়, তার জন্য লেখাটা লেখা হয়েছিল। লেখাটা সংশোধন করে দেবেন বলেও তিনি জানান।ওপরদিকে রাজ্য মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন সুনন্দা মুখোপাধ্যায়কে বিষয়টি জানানো হলে তিনি বিজ্ঞাপনদাতাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন।

তবে সমস্ত সভ্য সমাজ যেখানে সাঁওতাল রমনীদের মা-বোনের চোখে দেখে আসছে সেখানে এই ধরনের এক বিজ্ঞাপন সভ্য সমাজকে যে কতটা বুকে আঘাত দিল তা আর বলার থাকল না।

xaxaccszc

adasdas

To get regular News Update please like our Facebook Page and Follow us on Twitter. Now you can also Download our Android App form Google Play.

Check Also

মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর মাথায় ভেঙে পড়ল চাঙড়

প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়,হলদিয়া (পূর্ব মেদিনীপুর) :  পূর্ব মেদিনীপুরের সুতাহাটা থানার চৈতন্যপুরে একটি জনসভায় গিয়ে আহত হলেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.