Breaking News
Home >> Breaking News >> টিটাগড় ওয়াগন লিমিটেডের তৈরি নতুন জ্বালানিবাহী জাহাজ তুলে দেওয়া হলো ভারতীয় নৌসেনার হাতে

টিটাগড় ওয়াগন লিমিটেডের তৈরি নতুন জ্বালানিবাহী জাহাজ তুলে দেওয়া হলো ভারতীয় নৌসেনার হাতে

সৈকত গাঙ্গুলী,ব্যারাকপুর: গতবছর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্যারাকপুরের প্রশাসনিক বৈঠকে টিটাগড় ওয়াগান লিমিটেড এর প্রস্তাবিত জাহাজ প্রকল্পের রাস্তায় সমস্যা নিয়ে ধমক দিয়েছিলেন প্রশাসনের কর্তাদের। এরপর সেই সমস্যার সমাধানে উদ্যোগী হয় টিটাগড় পৌরসভার পৌরপ্রধান প্রশান্ত চৌধুরী ,বিধায়ক অর্জুন সিং , শীলভদ্র দত্ত ও টিটাগড় থানার পুলিশ। দিন কয়েকের মধ্যে জট কেটে পুনরায় শুরু হয় জাহাজ কারখানার পথ চলা। প্রথম ধাপেই নৌ বাহিনীর একটি তেল বহনকারী জাহাজের বরাত পায় সংস্থাটি ।
কাজ শুরু হওয়ার থেকে আঠেরো মাস সময় সীমা দেওয়া হয় সংস্থাকে। কিন্তু সেই নিদিষ্ট সময় সীমার দুমাস আগেই নৌ বাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হল নব নির্মিত এক হাজার টন তেল বহনকারী জাহাজটি। যা তৈরীতে ৩৫ কোটি টাকা খরচ হয়েছে।
এই জাহাজটি বিমান বহনকারী জাহাজ আই.এন.এস বিক্রমাদিত্যকে তেল সরবরাহের কাজ করবে ।
নতুন এই জাহাজটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নৌ বাহিনীর ভাইস এডমিরল এম.এস.পাওয়ার , টিটাগড় ওয়াগান লিমিটেড কর্নধার জে.পি.চৌধুরী, সাংসদ ব্যারাকপুর দীনেশ ত্রিবেদী, প্রাক্তন সাংসদ তড়িৎ বরন তোপদার ,বিধায়ক ব্যারাকপুর শীলভদ্র দত্ত, টিটাগড় ও ব্যারাকপুর পৌরসভার পৌরপ্রধান প্রশান্ত চৌধুরী ও উত্তম দাস সহ নৌ বাহিনীর উচ্চ পদস্থ আধিকারিকরা ।
নৌ বাহিনীর ভাইস এডমিরল এম.এস.পাওয়ার জানান, “এই মুহূর্তে তেল বহনকারী এই জাহাজটি বৃহত্তম নৌ বাহিনীর হাতে এলো এটি বড় জাহাজ গুলির কাজের ক্ষেত্রে অনেকটাই সহযোগিতা করবে।
টিটাগড় ওয়াগান লিমিটেড কর্নধার জে.পি.চৌধুরী বলেন, “আমরা এই জাহাজ তৈরীর কাজ যখন হাতে নিয়েছিলাম তখন অনেকে আমাদের উপর হেসেছিল বলেছিল কাজটি আমরা সময় মতো শেষ করতে পারব না। কিন্তু আমাদের কর্মীদের পরিশ্রমের ফলে আমরা সময়ের আগেই কাজ শেষ করে নজির করেছি। এরপরও এন.আই.ও.টির আরও দুটো জাহাজ আমাদের হাতে তৈরী হচ্ছে তাও আমরা সময়ের আগে তৈরী করে দিতে পারব বলে আশা করি এবং এই কর্মসংস্কৃতি দেখে আরও অনেকে এই রাজ্য শিল্প করতে এগিয়ে আসবে।

ভিডিওতে দেখুন কিভাবে জাহাজটিকে গঙ্গায় ভাসানো হচ্ছে

loading...

এছাড়াও চেক করুন

কালনার মেদগাছী গ্রামে নলকূপে বিষ মেশানোর অভিযোগ উঠল

রাজ কুমার ঘোষ, কালনা, পূর্ব বর্ধমান: রাতের অন্ধকারে পরিশ্রুত পানীয় জলের ট্যাপ এবং নলকূপে বিষ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.