Breaking News
Home >> Breaking News >> উন্নয়নের সাক্ষী হয়েই অগ্নিকন্যার পাশে রাজ্যের মানুষ

উন্নয়নের সাক্ষী হয়েই অগ্নিকন্যার পাশে রাজ্যের মানুষ

দক্ষিন দিনাজপুরঃ আসন্ন ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচন। শাসক-বিরোধী কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে ভোট প্রচারে। শাসক দলের নেত্রী ও মহাসচিবের নির্দেশে জোটবদ্ধ হয়ে দলের প্রচার করছেন নবীন-প্রবীন জুটি। এই চিত্র চোখে পড়েছে দক্ষিণ দিনাজপুরের কুমারগঞ্জ ব্লকেও। দলের সমস্ত নেতা কর্মীরা মান অভিমান দূরে রেখে জয়ের লক্ষ্যে একে অপরের সাথে হাত মিলিয়ে এগিয়ে চলেছেন।
দক্ষিণ দিনাজপুরে জেলা পরিষদের আসনে এবারের নির্বাচিত প্রার্থী মফেজউদ্দিন মিঞা। তিনি এই জেলার তৃণমূল কংগ্রেস কৃষাণ ক্ষেতমজুর দলের সভাপতি তথা কুমারগঞ্জ ব্লকেরও কার্যকারী সভাপতি। জন দরদী এই নেতাকে আবাল বৃদ্ধ বনিতা সবাই চেনে। অক্লান্ত সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে উঠে আসা এক ব্যাক্তিত্ব, যে আজ সবার মন জয় করে জেলা পরিষদের প্রার্থী হতে পেরেছেন। দলও লড়াকু মনোভাবাপন্ন তরুন-তুর্কী এই যুব নেতার উপর অগাধ আস্থা রেখেছে।
প্রত্যন্ত গ্রাম দিওর, এই গ্রামটি থেকে উঠে এসেছেন মফেজউদ্দিন মিঞা। ছোট বেলা থেকে ঘাত প্রতিঘাতের মধ্যে বড়ো হওয়া। দলের প্রতি তাঁর নিষ্ঠা দেখে দল তাকে নির্বাচন করে। কিন্তু ক্ষমতার জোর না দেখিয়ে, মানুষের পাশে থেকে কাজ করে দলের ভাব মূর্তিকে উজ্জল করেছেন তিনি। তিনি পদের জন্য নয় মানুষের পাশে দাঁড়াবার তাগিদেই কাজ করেন। তৃণমূল দল থেকে ৬ নং জেলাপরিষদের প্রার্থী হিসাবে তাঁর নাম ঘোষনার হওয়ার পর একান্ত সাক্ষাৎ কারে তিনি জানান, উন্নয়নই হবে আমাদের দলের নির্বাচনী এজেন্ডা। দল চেয়েছে তাই আমি প্রার্থী। দলের নেত্রী মমতা ব্যানার্জীর উন্নয়নই আমাদের প্রচারের প্রধান অস্ত্র। জেতার ব্যাপারে একশ শতাংশ আশাবাদী আমি।

এছাড়াও চেক করুন

পিছিয়ে গেল রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন, নুতন করে আবার মনোনয়ন জমা দেওয়া যাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published.