Breaking News
Home >> Breaking News >> দিদির উন্নয়নকে হাতিয়ার করে কাজের মাধ্যমে মানুষের পাশে আছি

দিদির উন্নয়নকে হাতিয়ার করে কাজের মাধ্যমে মানুষের পাশে আছি

দক্ষিণ দিনাজপুরঃ পঞ্চায়েত নির্বাচনের উচ্চ শৃঙ্গে দাঁড়িয়ে সবাই এখন প্রচারে ব্যাস্ত। সবাই নেমেছে জেতার আশায়। ঠিক তেমনই ছোট একটি গ্রামে পঞ্চায়েত আসনে দাঁড়িয়েছে রহিম মিঞা। সংসদটির নাম ঝাড়া। কুমারগঞ্জ ৫ নং ভৌঁওড় অঞ্চলের একটি ছোট সংসদ। সেইখানেই তৃণমূলের প্রার্থী সবার আদরের মানুষ রহিম মিঞা। সে সংসদে প্রতিদ্বন্দ্বী তা করবে সিপিএম, বিজেপি, কংগ্রেস সবার সাথে। তাতে তার কোন চিন্তার বিষয় নেই। কারন সেই বুথে উন্নয়নের সঙ্গী তিনি। তিনি তৃণমূলের অঞ্চল কমিটির সদস্য এবং কুমারগঞ্জ ব্লক যুব কংগ্রেসের সম্পাদক। তৃণমূলের কর্মী হিসেবে মানুষের পাশে থেকে কাজ করেন সব সময়। তাকে জেতার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, কেন জিতবো না? মানুষের পাশে আমরা সর্বক্ষণ থাকি। উদাহরণ হিসাবে তিনি বলেন-
১. গীতাঞ্জলী প্রকল্পের ৬টি বাড়ি হয়েছে।
২. অধিকার ২টি।
৩. PMYA> মোট বেনেফিসারী ১৮৪।
৪. ১০০ দিনের কাজ হয়েছে ১০০%।
৫. খামার-পুকুর অর্থাৎ পাট ও মাছ চাষ ১০ শতক এরিয়ায় কাজ হয়েছে ১০ টা।

রহিম মিঞার তত্ত্বাবধানে ২০১৬ – ১৭ তে এই সমস্ত উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে। এছাড়াও তিনি তৃণমূলের অঞ্চল কমিটির বর্তমান সদস্য ৫ নং ভৌওড় অঞ্চল থেকে এবং কুমারগঞ্জ ব্লক যুব সম্পাদক। তৃণমূল কংগ্রেস মনোনীত এই প্রার্থী বলেন, মানুষের মাঝে থেকে কাজ করি। মানুষ আমাকে গ্রহন করবে বলে মনে করি। তাই জেতার ব্যাপারে ১০০% আশাবাদী।

এছাড়াও চেক করুন

পিছিয়ে গেল রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন, নুতন করে আবার মনোনয়ন জমা দেওয়া যাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published.