Breaking News
Home >> Breaking News >> ফের তৃনমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত দিনহাটা, তিনটি মোটর সাইকেল ভাঙচুর

ফের তৃনমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত দিনহাটা, তিনটি মোটর সাইকেল ভাঙচুর

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ করেসপেন্ডন্স, কোচবিহারে: ফের তৃনমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠী সংঘর্ষে জেরে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে দিনহাটার ভেটাগুড়ি এলাকা। শনিবার রাতে ভেটাগুড়ির কাশিগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় ওই সংঘর্ষের জেরে তিনটি মোটর সাইকেল ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দেয়। খবর পেয়ে দিনহাটার এসডিপিও উমেশ গনপতের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর থেকে দিনহাটা জুড়ে তৃনমূল কংগ্রেসের দুই গোষ্ঠী মাদার ও যুব’র কর্মী সমর্থকদের মধ্যে একের পর সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেই চলেছে। সম্প্রতি দিনাহটার গীতালদহে ওই দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে এক পঞ্চায়েত কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। তারপরেও সেখানে তৃণমূলের ওই গোষ্ঠী সংঘর্ষে লাগাম টানতে পারে নি পুলিশ প্রশাসন। প্রায় প্রতিদন রাতেই বিভিন্ন এলাকায় মোটর সাইকেল বাহিনী ঢুকে এক গোষ্ঠী আরেক গোষ্ঠীর কর্মী সমর্থকদের উপর হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠে আসছে। শুধু তাই নয়, বোমা ছোঁড়া, শুন্যে গুলি চালানোর অভিযোগও উঠে আসছে বারবার।
অভিযোগ, শনিবার রাতেও ভেটাগুড়ির কাশিগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় মাদার তৃনমূল কংগ্রেসের দুই সমর্থক বাবার উদ্দিন রহমান ও জহির আলীর বাড়িতে হামলা চালায় মোটর সাইকেল বাহিনী। প্রথমবার হামলার পর ফের হামলা চালাতে আসলে রাস্তায় বাঁশ ফেলে ওই বাহিনী কে আটকে দেয়। এরপরে ওই বাহিনীর লোকজন শুন্যে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। কিন্তু ফেলে রেখে যায় তিনটি মোটর সাইকেল। ওই তিন মোটর সাইকেলের মধ্যে একটিতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়। অন্য দুটি মোটর সাইকেল ভাঙচুর করা হয়। যদিও ওই ঘটনা নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে স্থানীয় তৃনমূল কংগ্রেস নেতা অনন্ত বর্মণ বলেন, “বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীদের মদতে এই এলাকার এক যুবক প্রকাশ্যে বন্দুক নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার মদতেই বাইরে থেকে দুষ্কৃতি এনে তৃনমূল কংগ্রেস কর্মীদের উপরে হামলা করা হচ্ছে। গতকাল রাতে হামলা করতে এসে আমাদের দুই সমর্থকের বাড়িতে ভাঙচুর ও মহিলাদের শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। পরে ফের হামলা করতে আসলে এলাকার মানুষ তাঁদের আটকে দেয়। কিন্তু শুন্যে গুলি ছুঁড়ে দুষ্কৃতিরা পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। তবে তাঁদের তিন টি মোটর সাইকেল ফেলে রেখে গিয়েছেল। গ্রামের মানুষ ক্ষুব্ধ হয়ে সেগুলি ভাঙচুর করে।” যদিও বিজেপির কোচবিহার জেলা সভাপতি নিখিল রঞ্জন দে বলেন, “জেলার কোন গ্রামেই প্রকাশ্যে বিজেপি করে এলাকায় থাকতে পারছে না। সেখানে ভেটাগুড়িতে বিজেপি আক্রমণ করবে কি করে। এমন হাস্যকর অভিযোগ করে কি লাভ?” অন্যদিকে তৃনমূল যুব কংগ্রেসের দিনহাটা ১ নম্বর ব্লকের আহ্বায়ক নারায়ণ শর্মা কিন্তু তাঁদের কর্মীরাই ভেটাগুড়ির কাশিগঞ্জ বাজারে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেন, “একটি চরকের মেলা থেকে ফেরার সময় যুব’র কর্মীদের উপরে আক্রমণ করে মাদারের কর্মী সমর্থকরা। কোন ক্রমে প্রান বাঁচাতে তারা পালিয়ে আসেন। তাঁদের মোটর সাইকেল গুলো ভাঙচুর করে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়।”

এছাড়াও চেক করুন

শহরকে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ মুক্ত করতে অভিযানে নামল কোচবিহার পুরসভা

মনিরুল হক, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, কোচবিহারঃ শহরে প্লাস্টিক ক্যারিব্যাগ ব্যবহার বন্ধ করতে অভিযানে নামল কোচবিহার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.