Breaking News
Home >> Breaking News >> নারীমুক্তি রূপায়ণে আন্তর্জাতিক নারী দিবস চেতলা পার্কে

নারীমুক্তি রূপায়ণে আন্তর্জাতিক নারী দিবস চেতলা পার্কে

ঋদ্ধিমান রায়: ‘ এই আকাশে আমার মুক্তি আলোয় আলোয়…’ শাশ্বত মুক্তির বিশ্বজনীন ভাবনাটি ধরা পড়ে নেহরু যুব কেন্দ্র দক্ষিণ কলকাতা এবং ‘ শি ‘ সমাজসেবী সংঠনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আন্তর্জাতিক নারী দিবসে| ৮ ই মার্চের এই অনুষ্ঠানের রূপকল্পে রয়েছেন বিশিষ্ট সমাজসেবিকা শম্পা বিশ্বাস এবং নেহরু যুব কেন্দ্র দক্ষিণ কলকাতার জেলা আধিকারিক রঘুমণি চট্টোপাধ্যায়| অনুষ্ঠানে নারী ভাবনামূলক নৃত্য, আবৃত্তি এবং ভায়োলিন বাদ্য পরিবেশন করেন উদীয়মান শিল্পীরা| যুবতিদের দিয়ে সাদা ছাতা ভরানো হয় রঙিন আল্পনায়| অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল নারীমুক্তির প্রতীকী থিম একসাথে একশ গ্যাসবেলুন আকাশে ওড়ানো| মহিলাদের সক্রিয় অংশগ্রহণে উপস্থাপিত হয় একটি নকল সংসদ, যেখানে তর্কের বিষয়বস্তু ছিল ‘ রোজগারে পুরুষ নির্ভরতা না কি নারী- পুরুষকে রোজগারের জন্য সমান উৎসাহ দেওয়া উচিত ‘| লক্ষ্যনীয়ভাবে প্রত্যেক মহিলাই উভয়ের রোজগারের প্রয়োজনীয়তার পক্ষেই দৃঢ় সওয়াল করেন| প্রধান অতিথিদের মধ্যে ছিলেন রাজ্য মহিলা কমিশনের সহ সভাপতি অধ্যাপক মারিয়া ফার্নান্ডেজ, বিশিষ্ট আলোকচিত্রশিল্পী অতনু পাল এবং নেহরু যুব কেন্দ্রের রাজ্য অধিকর্তা নবীনকুমার নায়েক সহ অন্যান্য অতিথিগণ| মারিয়া ফার্নান্ডেজ তাঁর নাতিদীর্ঘ বক্তব্যে নির্যাতিতা মহিলাদের প্রতিকারের বিভিন্ন ঠিকানা এবং উপায় সম্পর্কে আলোকপাত করেন| জেলা আধিকারিক রঘুমণি চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্যে উঠে আসে বাংলার নারী জাগরণের প্রধান দুই অগ্রদূত রামমোহন ও বিদ্যাসাগরের কথা| কঠিন সংগ্রাম করে বেঁচে থাকা দুইজন মহিলাকে জানানো হয় উষ্ণ সংবর্ধনা| সমাজসেবী শম্পা বিশ্বাস বলেন, ‘ আজ আমরা মহিলারা পিছিয়ে নেই| আরো এগিয়ে যেতে চাই, তবে পুরুষদের পিছনে ফেলে না, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ‘।

loading...

এছাড়াও চেক করুন

বিভিন্ন দাবি নিয়ে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপারকে স্মারকলিপি তুলে দিলেন দিনহাটা জন জাগরন মঞ্চ

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ বিভিন্ন দাবি দাবা নিয়ে মহকুমা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপারের কাছে স্মারকলিপি তুলে দিলেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.