Breaking News
Home >> Breaking News >> মন্ত্রীর কথায় গঙ্গাসাগরে ২৯ লক্ষ তীর্থযাত্রী স্নান সেরেছে! সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত ঝাড়খণ্ডের ১ মহিলা

মন্ত্রীর কথায় গঙ্গাসাগরে ২৯ লক্ষ তীর্থযাত্রী স্নান সেরেছে! সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত ঝাড়খণ্ডের ১ মহিলা

গঙ্গাসাগর থেকে কল্যাণ অধিকারী: গঙ্গাসাগর মেলায় বিকেল ৬টা অবধি ১৫ লক্ষ তীর্থযাত্রী সাগরে পুণ্যস্নান সারলেন। মোট ২৯ লক্ষ তীর্থযাত্রীর সমাগম। মকরসংক্রান্তি বিকেলে সাংবাদিক দের মুখোমুখি হয়ে একথা জানালেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়।
সকাল থেকে উদ্বেল হয়ে সাগরে ডুব দিয়েছে দোহাতী, চাষাভুষো মানুষগুলো। পাশাপাশি দিল্লি সহ বিভিন্ন রাজ্য থেকে আসা শিক্ষিত সমাজ পুণ্যের লাভে সাগরে নেমেছে। একে রাতভোর খোলা আকাশের নিচে কাটিয়েছে, অন্যদিকে সাত সকালে সাগরে ডুব দিয়ে দোহাতী দের থরহরি কম্পন। স্নান সেরে জামা কাপড় গায়ে জড়িয়ে চায়ের কাপে একের পর এক চুমুক দিয়ে গা গরম করে নিতে চাইলেও কাঁপুনি কমছে কই!
দিনেরাতে কায়েক পরিশ্রম করে সাগরে বিকাশ তুলে ধরা দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার জেলাশাসক ওয়াই. এম.রত্নাকর রাও দিনের শেষে অনেকটাই প্রশংসা কুড়িয়েছেন। মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় পাশে বসিয়ে সাংবাদিক সম্ভেলনে অনেকটাই প্রশংসা বাক্য ছুড়ে দিলেন। তবে সাগর থেকে কচুবেড়িয়া ফিরবার বাস দুর্ঘটনায় ঝাড়খন্ডের এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে জানান। এসপি সন্তোষ পান্ডে মাইক হাতে জানান, মৃত মহিলার নাম সুখিয়া দেবী। বয়স (৬৫)। ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা। রেষারেষির কারণে এই দুর্ঘটনা বলে জানান। ওই দুর্ঘটনায় ১৪ জন আহত হয়েছেন। মন্ত্রী মাইক কেড়ে নিয়ে জানালেন ওদের ক্ষতিপূরণ দিয়ে দেওয়া হবে। এছাড়া দুপুর ২টোয় আরও একটি বাস দুর্ঘটনা ঘটে। গতির কারণে দুর্ঘটনা। সন্তোষ পান্ডে বলেন, একটি বাঁক ঘুরবার সময় দুর্ঘটনা ঘটে। আহতের সংখ্যা ১৪। এছাড়া মেলা চত্বর থেকে ৮০ জন চোর ধরা পড়েছে।
এতকিছুর হিসাব তীর্থযাত্রী কবে মনে রেখেছে। গঙ্গাসাগর মানেই কষ্ট করতে হবে। কিলোমিটার হিসাবে না রেখে হেঁটে যেতে হবে। রাতে খোলা আকাশের নিচে হিম ভেজা কম্বলে রাত কাটাতে হবে। সাগরে কোমরডোবা জলে বসে মাথা ডুবতে হবে। পুণ্যের ভাগিদারী হতেই হবে। মানুষের হিসাবটা না হয় মন্ত্রী রাখবেন।কত মানুষ মোট এসেছেন এ প্রশ্নের জবাবে আদ্যপ্রান্ত ভারি গলার মন্ত্রী সুব্রত বাবু জানালেন এই অবধি ২৯ থেকে ৩০ লক্ষ মানুষ স্নান সেরেছেন। তবে এখানে তো আর সেই ভাবে হিসাব হয় না। মানুষ গঙ্গাসাগরে আসছে আবার ফিরে যাচ্ছে। মেলায় তো আর একসাথে ২৯ লক্ষ মানুষ থাকবে না! নিঃশ্বাস শুরু হল সবার। সাংবাদিক সম্ভেলনে ছিলেন মনীষ গুপ্ত, অরূপ বিশ্বাস, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়।

Check Also

বীজপুর থানার উদ্যোগে পালিত হল পথ নিরাপত্তা বিষয়ক শোভাযাত্রা

দেবাশিস রায়: বীজপুর থানার উদ্যোগে ১৯ ফেব্রুয়ারি, সোমবার পালিত হল শোভাযাত্রা। ‘পথ নিরাপত্তা সপ্তাহ’ উদযাপনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published.