Breaking News
Home >> Breaking News >> কোলাঘাটের রাইন বৃদ্ধাবাসের বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের নিয়ে সারাদিন ধরে চললো বিবেক যাত্রা

কোলাঘাটের রাইন বৃদ্ধাবাসের বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের নিয়ে সারাদিন ধরে চললো বিবেক যাত্রা

নিজস্ব প্রতিবেদন, প্রসূন ব্যানার্জীঃ ওরা নিজের আপন ঘর ছেড়েছিল বেশকিছুদিন আগে। নিজের তৈরীকরা হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে গড়ে তুলেছিল ছেলেমেয়েদের নিয়ে সুন্দর সংসার।কিন্তু ভাগ্যের পরিহাসে ওদের শেষ আশ্রয়স্থল এখন বৃদ্ধাশ্রম।পূর্ব মেদিনীপুরের কোলাঘাটের রাইন বৃদ্ধাবাস প্রায় বছর কুড়ি আগে দুঃস্থ অসহায়দের কথা মাথায় রেখে প্রতিষ্ঠা হয়েছিল।পঁচিশজন আবাসিকদের নিয়ে চলে এই আবাসিক বৃদ্ধাবাসটি।স্থানীয় এলাকা ছাড়াও কোলকাতা, দূর্গাপুর,হাওড়া,মেদিনীপুরের মোট পঁচিশজন আবাসিক বিনা খরচায় থাকেন।স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অমর সেবা সংঘ এই মহতি কাজ করে আসছেন।সরকারী সহায়তা তেমন নেই।একপ্রকার চেয়েচিন্তে বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের শেষ দিন পর্যন্ত হাঁসি খুশিতে রাখতে চান এই সংস্থা। বছরের অনেকসময় বিভিন্ন সংস্থা,নেতা নেতৃত্ব মাঝেমধ্যে আবাসিকদের নানাভাবে পাশে দাঁড়ান।১২ ই জানুয়ারী শুক্রবার ছিল স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৬ তম জন্মদিবস।এই দিনটিতে বিভিন্ন যায়গায় স্বামীজির জন্মদিবস পালন হলেও এইদিনটি একটু ব্যতিক্রমিভাবে পালন হলো কোলাঘাটে।স্থানীয় সমাজসেবী উজ্জ্বল ভট্টাচার্য এর নেতৃত্বে বিবেক র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়, তবে এই র‍্যালির বৈশিষ্ঠ ছিল একটু ভিন্ন রকমের।এদিন বিবেক র‍্যালিতে রাইন বৃদ্ধাবাসের বৃদ্ধ বৃদ্ধাীরা অংশ নেন।রাইন গ্রাম থেকে কোলাঘাট পর্যন্ত টোটো গাড়িতে করে বিবেক র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়।এরপর কোলাঘাটে বিবেকানন্দের মূর্তিতে মালা দেওয়া হয়।এরপর সারাদিন কোলাঘাট রুপনারায়ন নদীর তীরে বৃদ্ধাবাসের আবাসিকদের নিয়ে চলে চড়ুইভাতি।এই অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা উজ্জ্বল বাবু জানান,প্রতিবছর এই দিনটি আমরা পালনকরি।তবে এবছর একটু ভিন্নভাবে পালন করা হলো।ঘরছাড়া এই বৃদ্ধবৃদ্ধারা অনেক কষ্ট যন্ত্রনা নিয়ে এখানে আছেন।বিবিকানন্দের জন্মদিনে একটু হাঁসি ফোটাতে এই ছোট্ট প্রয়াস।

Check Also

ছাত্রাবাসের উদ্বোধন হল উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে

পিয়া গুপ্তা, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, উত্তর দিনাজপুর: রবিবার দুপুরে উত্তর দিনাজপুর জেলাতে কালিয়াগঞ্জ পার্ব্বতী সুন্দরী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.