Breaking News
Home >> Breaking News >> মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের সুবাদে মিশন নির্মল বাংলা ও স্বচ্ছ ভারতের প্রচার

মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের সুবাদে মিশন নির্মল বাংলা ও স্বচ্ছ ভারতের প্রচার

মইনুল ইসলাম, স্টিংনিউজ করেসপনডেন্ট, সাগরদীঘি: কেন্দ্র সরকারের ‘স্বচ্ছ ভারত মিশন’-এর আওতায় ‘নির্মল বাংলা অভিযান’কর্মসূচিতে আগামী 15 জানুয়ারী মুর্শিদাবাদ জেলা কে নির্মল ঘোষণা করার কথা। সেই জন্য প্রতিটি বাড়িতে শৌচাগার বানানোর দিকে যেমন জোর দেওয়া হচ্ছে, তেমনই শৌচাগার ব্যবহারের সুবিধা এবং শৌচাগার ব্যবহার না করার কুফল কী কী, তা নিয়ে প্রচারও চলছে।আজ স্বামী বিবেকানন্দের 156 তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত হল বিশ্ব জুড়ে। তাঁর জন্মবার্ষিকী কে সম্মান জানাতে সাগরদীঘির গোবর্ধনডাঙ্গা অঞ্চলে স্থাপিত মর্ডাণ কোচিং সেন্টারে একটি জনকল্যাণ সচেতন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়।এই কর্মসূচীতে ব্লক আধিকারিক সহ ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষক মণ্ডলী অংশ গ্রহণ করেন। স্বামী বিবেকানন্দের ছবিতে মাল্যদান করে কর্মসূচীর সূচনা হয়।তারপর একটি র‍্যালির মাধ্যমে জনকল্যাণ সচেতন বার্তা প্রদান করা হয়।এই র‍্যালির মাধ্যমে প্রচার করা হয় খোলা জায়গায় মল মূত্র ত্যাগ করা যাবে না। মাঠে ঘাটে পায়খানা আর নয় নির্মল মুর্শিদাবাদ জেলা চায়। এই ধরনের সচেতনমূলক কর্মসূচী গ্রহন করায় ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের ।এলাকার বুদ্ধিজীবীদের মতামত – মর্ডাণ কোচিং সেন্টার হল একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। তা শর্তেও শিক্ষক মন্ডলীদের উদ্যোগ প্রশংসনীয়। তাঁরা সরকারী কোন সাহায্য ছাড়া সরকারের কর্মসূচী পালন করে চলেছে।শুধু এই কর্মসূচী নয় বাল্যবিবাহ, পণপ্রথা,নেশামুক্ত ভারত,কুজবে কান না দেওয়া, ইত্যাদি কর্মসূচী গ্রহণ করে থাকে। এছাড়াও দুস্থ ছাত্র ছাত্রীদের প্রতি বিনামূল্যে শিক্ষা প্রদান ও বইখাতা দিয়ে সহযোগিতা করে মর্ডাণ কোচিং সেন্টার।মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের শিক্ষক বাবুল সেখ জানান – সমাজ কে সুন্দর ভাবে গড়ে তোলার জন্য শিক্ষকদের অনেক ভূমিকা থাকে।মর্ডাণ কোচিং সেন্টার খোলার উদ্দেশ্যে হল পিছিয়ে পড়া গোবর্ধনডাঙ্গা অঞ্চল কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। অনেকের পড়ালেখার ইচ্ছা থাকলেও পড়ালেখার খরচের চাহিদায় অনেক পরিবার পড়ালেখা বন্ধ করিয়ে দেয় ছেলে মেয়েদের। কিন্তু মর্ডাণ কোচিং সেন্টার সম্পূর্ণ না পারলে কিছু টা পাশে দাঁড়াতে চায়।মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সমাজসেবী হিসাবে সকলের মাঝে চিহ্নিত করতে চায় মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের শিক্ষক মণ্ডলীরা।আজকের এই কর্মসূচি মানুষের মাঝে সঠিক ভাবে তুলে ধরতে পেরে ভীষণ খুশি বলে জানান বাবুল বাবু।মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের দশম শ্রেণীর ছাত্রী নাজমুন নেহা জানান – গোলা মাঠের পায়খানা থেকেই হচ্ছে ভাইরাস ঘটিত রোগ।শৌচাগার ব্যবহার সম্পর্কে নিজে অবগত হলেই হবে না অপরকে অবগত করতে হবে। কারণ অপরের মল মূত্র থেকেই ছড়াতে পারে রোগ। তাই মর্ডাণ কোচিং সেন্টারের সুবাদে গোবর্ধনডাঙ্গাবাসীকে শৌচাগার ব্যবহার ও নির্মাণ করার বার্তা প্রদান করা হয়।

Check Also

ছাত্রাবাসের উদ্বোধন হল উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে

পিয়া গুপ্তা, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, উত্তর দিনাজপুর: রবিবার দুপুরে উত্তর দিনাজপুর জেলাতে কালিয়াগঞ্জ পার্ব্বতী সুন্দরী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.