Breaking News
Home >> Breaking News >> মদপানের প্রতিবাদ, নদিয়ায় প্রতিবাদীর গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন

মদপানের প্রতিবাদ, নদিয়ায় প্রতিবাদীর গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন

কমল দত্ত, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, নদিয়া: ফের মদ্যপদের হাতে আক্রান্ত প্রতিবাদী এক যুবক। এবার বাড়ীর পাশে মদ্যপানের আসর বসানোর প্রতিবাদ করায় প্রতিবাদীকে গায়ে পেট্রোল দিয়ে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার চেষ্টা। ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য নদিয়ার চাকদহে।

গতকাল রাতে এই ঘটনার সূত্রপাত। অগ্নিদগ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কল্যাণী জওহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন প্রতিবাদী যুবক শান্তনু দাস (বর্কা)(২৫ )। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত যুবক সৌমেন দেবনাথ।

সূত্রের খবর, নদিয়ার চাকদহ পুরসভার ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের গৌড়পাড়া ২ নম্বর রাধাকৃষ্ণ কলোনীর বাসিন্দা পেশায় গ্যারেজ মেকানিক শান্তনু দাস। অভিযোগ, বুধবার রাতে আনুমানিক ৯টা নাগাদ শান্তুনুর বাড়ির পাশে মদ্যপানের আসর বসিয়ে ছিল সৌমেন ও তার কয়েকজন বন্ধু।

অভিযোগ, এই ঘটনার প্রতিবাদ করে সৌমেনকে ও তার বন্ধুদের মদের আসর অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যেতে বলে শান্তনু। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই দুই জনের মধ্যে বচসা শুরু হয়।

অভিযোগ, বচসা ক্রমে হাতাহাতির জায়গায় পৌঁছালে সৌমেনের বন্ধুরা বিষয়টি মেটানোর চেষ্টা করে। তখনই সৌমেন পাশের একটি দোকান থেকে পেট্রোল নিয়ে এসে শান্তনুর গায়ে ছিটিয়ে দেয়। এরপর পাশের বাড়িতে উনুনের জলন্ত আগুন নিয়ে গিয়ে তার গায়ে লাগিয়ে দেয়।

এই ঘটনার পর স্থানীয় মানুষজন শান্তনুকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কল্যাণী জহরলাল নেহেরু মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করান। হাসপাতাল সূত্রের খবর, তার দেহের প্রায় ৬৫ শতাংশ পুড়ে গেছে।

এই ঘটনায় গৌড়পাড়া এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্ত সৌমেন ও তার দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে চাকদহ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন শান্তনু দাসের বাবা জীবন কৃষ্ণ দাস।

ঘটনার পর থেকেই পলাতক সৌমেন ও তার বন্ধুরা। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সৌমেন দেবনাথ এই ঘটনার মুল অভিযুক্ত এবং সে স্থানীয় ওই এলাকায় একের পর এক সমাজ বিরোধী কার্যকলাপের সংঙ্গে যুক্ত বলে প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন।

এছাড়াও চেক করুন

ব্যারাকপুর কমিশনারেটের ট্রাফিক বিভাগের এক অভিনব উদ্যোগ

সৈকত গাঙ্গুলী,ব্যারাকপুর: গ্রীষ্মকালের চরম দাবদাহের সময় রাস্তায় কাজে বের হওয়া পথচারী ও গাড়ি চালকদের ঠান্ডা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.